দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নিজের দলের কর্মীদের মুখেই দূর হঠো স্লোগান শুনলেন তৃণমূল নেতা! সরগরম বর্ধমান

নিজের দলের কর্মীদের মুখেই দূর হঠো স্লোগান শুনলেন তৃণমূল নেতা! সরগরম বর্ধমান

মঙ্গলবার বিকেলের বঙ্গধ্বনি যাত্রায় খোকন দাস এবং আইনুল হককে একই মিছিলে হাঁটতে দেখা যায়। একই মঞ্চেও দুজনকে দেখা যায়।

  • Share this:

#বর্ধমান: শাসকদলের প্রভাবশালী নেতাকে সর্বসমক্ষে হেনস্তা করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন সরগরম বর্ধমান শহর। শহরের প্রাণকেন্দ্র কার্জন গেটে বঙ্গধ্বনি যাত্রার সমাপ্তি অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে দলের প্রভাবশালী নেতা খোকন দাসকে উদ্দেশ্য করে দূর হটো স্লোগান দেওয়া হয়।অশান্তি এড়াতে তড়িঘড়ি সভা শেষ করে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। এভাবে দলের নেতাকে ঘিরে সর্বসমক্ষে বিক্ষোভের ঘটনায় শহর জুড়ে ব্যাপক আলোড়ন তৈরি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে বর্ধমান শহরে বঙ্গধ্বনি যাত্রা কর্মসূচির সমাপ্তি উপলক্ষ্যে শহরে মিছিলের আয়োজন করে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই মিছিলে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলা সাধারণ সম্পাদক উত্তম সেনগুপ্ত, মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি শিখা দত্ত সেনগুপ্ত, জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রাসবিহারী হালদার,অন্যতম সাধারণ সম্পাদক খোকন দাস সহ জেলা নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। মিছিল শেষে বর্ধমানের প্রাণকেন্দ্র কার্জন গেটে একটি সভার আয়োজন করা হয়। বঙ্গধ্বনির সেই সভার শেষের দিকে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের একাংশ বিক্ষোভ দেখান। বিজেপির দালাল খোকন দাস দূর হঠো স্লোগান তুলে বিক্ষোভ দেখায় তারা।

খোকন দাস জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক। কয়েকদিন ধরেই তিনি মঞ্চ থেকে বেশকিছু তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে তোপ দাগছিলেন। সমালোচনায় বিচ্ছিন্ন দলের রাজ্য নেতৃত্বকেও। সরব হয়েছিলেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া আইনুল হকের বিরুদ্ধেও। আইনুল হক কয়েক মাস আগেই বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেন।

মঙ্গলবার বিকেলের বঙ্গধ্বনি যাত্রায় খোকন দাস এবং আইনুল হককে একই মিছিলে হাঁটতে দেখা যায়। একই মঞ্চেও দুজনকে দেখা যায়। এরপরই কর্মীদের একাংশ তৃণমূল কর্মী খোকন দাসের বিরুদ্ধে বিজেপির দালাল বলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। বিক্ষোভ এমন পর্যায়ে পৌঁছায় দ্রুত সভা শেষ করে মঞ্চ ছাড়েন মন্ত্রী তথা জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ।

খোকন দাস জানান, এই বিষয়ে তিনি কিছু বলবেন না।যা বলার জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলবেন। স্বপন দেবনাথ জানান, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস ও যুব তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বঙ্গধ্বনির শেষদিন উপলক্ষ্যে উল্লাস থেকে কার্জন গেট পর্যন্ত একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলে প্রচুর জনসমাগম হয়েছিল।

Published by: Pooja Basu
First published: December 30, 2020, 12:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर