বকেয়া টাকা চেয়ে আক্রান্ত ঠিকাদার, প্রকাশ্যে মারধর তৃণমূল নেতার

বকেয়া টাকা চেয়ে আক্রান্ত ঠিকাদার, প্রকাশ্যে মারধর তৃণমূল নেতার

বকেয়া টাকা চেয়ে আক্রান্ত ঠিকাদার, প্রকাশ্যে মারধর তৃণমূল নেতার

বকেয়া টাকা চেয়ে আক্রান্ত ঠিকাদার, প্রকাশ্যে মারধর তৃণমূল নেতার

  • Share this:

    #অন্ডাল: ঠিকাদারকে মারধর করেও বেপরোয়া তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে এলেও অনুতপ্ত নন তিনি। উল্টে আইন হাতে নিয়ে তিনি যে ঠিক করেছেন তাই বোঝাচ্ছেন ওই জনপ্রতিনিধি। ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুরের অণ্ডালে।

    বকেয়া টাকা চাওয়ায় আক্রান্ত হন স্থানীয় ঠিকাদার সমীর মুখোপাধ্যায়। নিগৃহীত হন তাঁর স্ত্রীও। এসবে অবশ্য দমবার পাত্র নন অভিযুক্ত অন্ডাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কালোবরণ মণ্ডল। তাঁর জবাব, হয় মরব, নয় মারব।

    ঠিকাদারকে বেধড়ক মার তৃণমূল কংগ্রেস নেতার। অণ্ডালের ঠিকাদার সমীর মুখোপাধ্যায়ের অভিযোগ, গত বূুধবার নির্মাণ কাজের বকেয়া টাকা চাইতে গিয়েছিলেন তিনি। তাতেই উত্তেজিত হয়ে মারধর শুরু করেন অণ্ডাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কালোবরণ মণ্ডল।

    স্বামীকে মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন সমীর মুখোপাধ্যয়ের স্ত্রী পর্ণা। তাঁকেও হেনস্থা করা হয় বলে অভিযোগ। এনিয়ে অণ্ডাল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তাঁরা।

    অভিযোগ পেয়েও হেলদোল নেই পুলিশের। কিন্তু, সিসিটিভির ফুটেজ প্রকাশ্যে আসতেই সংবাদমাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়। তাতেও অবশ্য বিন্দুমাত্র অনুতপ্ত নন অভিযুক্ত কালোবরণ। এখনও সমান বেপরোয়া ওই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। ফোনো বাইট কালোবরণ মণ্ডল, সভাপতি, অণ্ডাল পঞ্চায়েত সমিতি

    পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, কালোবরণের বিরুদ্ধে আলাদা করে দলীয় তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

    First published: