• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • তোলাবাজিতে অভিযুক্ত কাইজার আহমেদ, ভাঙড়ের দাপুটে তৃণমূল নেতা কাইজার

তোলাবাজিতে অভিযুক্ত কাইজার আহমেদ, ভাঙড়ের দাপুটে তৃণমূল নেতা কাইজার

মাথায় তোলাবাজির অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা। অথচ পুলিশ ধরছে না তৃণমূল নেতা কাইজার আহমেদকে।

মাথায় তোলাবাজির অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা। অথচ পুলিশ ধরছে না তৃণমূল নেতা কাইজার আহমেদকে।

মাথায় তোলাবাজির অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা। অথচ পুলিশ ধরছে না তৃণমূল নেতা কাইজার আহমেদকে।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: মাথায় তোলাবাজির অভিযোগে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা। অথচ পুলিশ ধরছে না তৃণমূল নেতা কাইজার আহমেদকে। পুলিশ বলছে নিরুদ্দেশ। অথচ সোমবার রাতে ইটিভি নিউজ বাংলার ক্যামেরায় বন্দি ভাঙড়ের দাপুটে নেতা। আদালতের নির্দেশেও পুলিশ নিষ্ক্রিয় থাকায় মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি নির্মাণকারী সংস্থার।

    কাইজার আহমেদ। ভাঙড়ের দাপুটে তৃণমূল নেতা। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের সদস্য। তাঁর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু হয়েছে ভাঙড় থানায়। অথচ প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। সোমবার রাতে কলকাতার পিজি হাসপাতালে ধরা পড়ল কাইজারের ছবি। কাইজারের বিরুদ্ধে কী অভিযোগ।

    তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ৫০ লক্ষ টাকা তোলা চাওয়ার অভিযোগ। ভাঙড়ে একটি আবাসন নির্মাণকারী সংস্থার অধিকর্তা লালবাবু মোল্লার দাবি, ১০ লক্ষ টাকা তিনি ইতিমধ্যেই দিয়েছেন। বাকি টাকা না পেলে প্রাণে মারার হুমকিও দেওয়া হয়েছে। এপ্রিলেই ভাঙর থানায় অভিযোগ করেন লালবাবু। পুলিশ তাঁকে ফিরিয়ে দেয়। হাইকোর্টের নির্দেশে পুলিশ জামিন অযোগ্য ৩৮৬ ধারায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করতে বাধ্য হয়। তার পরও ধরা হয়নি কাইজারকে।

    লালবাবু পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার মামলা করেন। ৫ জুলাই পুলিশের সমালোচনা করেন বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি। দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে ৪ সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলেন। লালবাবুর অভিযোগ, তিন সপ্তাহ কেটে গেলেও কাইজার আহমেদকে ছোঁয়নি পুলিশ। আমাদের ক্যামেরাও সেই কথাই বলছে। সিন্ডিকেট আর তোলাবাজির বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। সল্টলেকের কাউন্সিলর অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়-সহ অনেক তৃণমূল নেতা-কর্মী পাকড়াও হয়েছেন। তাই সোমবার প্রতিকার চেয়ে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন লালবাবু মোল্লা।

    First published: