Poster Against TMC MLA in Mahisadal: 'বিধায়কের দেখা নেই, তৃণমূলের ভোটও নেই!' মহিষাদলে পোস্টার, অস্বস্তিতে শাসক দল

Poster Against TMC MLA in Mahisadal: 'বিধায়কের দেখা নেই, তৃণমূলের ভোটও নেই!' মহিষাদলে পোস্টার, অস্বস্তিতে শাসক দল
মহিষাদল জুড়ে পড়েছে এমনই পোস্টার৷

স্থানীয়দের প্রশ্নের মুখে পড়ে চাপ বাড়ছে মহিষাদলের তৃণমূল নেতাদের। নিজেরাই সেকথা স্বীকার করছেন ব্লক তৃনমুল নেতারা।

  • Share this:

#মহিষাদল: 'বিধায়কের দেখা নেই/মহিষাদলে তৃণমূলের ভোট নেই!' ভোটের আগে তাই স্থানীয় তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে লেখা এইসব পোস্টার পড়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে। যেখানে টানা দশ বছরের তৃণমূল বিধায়ক সুদর্শন ঘোষ দস্তিদারকে এলাকায় দেখা যায় না বলে অভিযোগ করছেন স্থানীয় মানুষজন। তৃনমুল নেতাদের এলাকার লোকজন এই নিয়ে সরাসরি প্রশ্নও করছেন।

স্থানীয়দের প্রশ্নের মুখে পড়ে চাপ বাড়ছে মহিষাদলের তৃণমূল নেতাদের। নিজেরাই সেকথা স্বীকার করছেন ব্লক তৃনমুল নেতারা। "দুয়ারে সরকার", "পাড়ায় পাড়ায় সমাধান", "বঙ্গধ্বনি যাত্রা" সহ দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে গ্রামে গ্রামে এলাকায় এলাকায় গিয়ে নানা সমস্যার পাশাপাশি ব্লক তৃনমুল নেতাদের শুনতে হচ্ছে, "বিধায়ককে কেন এলাকায় দেখা যায় না?"

স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের একাংশ স্বীকার করেই নিয়েছেন, 'সারা বছরই এই প্রশ্ন শুনতে হয়। তবে ভোট এগিয়ে আসায় মহিষাদলের মানুষজন এখন বেশি বেশি করেই বলছেন- বিধায়ক কোথায়?' এসবের মধ্যেই এই ইস্যুতে বিরোধী দল বিজেপি নেতৃত্বও তৃণমূলকে কটাক্ষ করতে ছাড়ছে না! বিধায়ককে এলাকায় দেখা যায় না, এই ইস্যুতে রাজনৈতিক চাপানউতোর এবং মানুষের তোলা বিভিন্ন প্রশ্নের মধ্যেই মহিষাদলের জায়গায় জায়গায় আজ দেখা গেল এইসব পোস্টার! কোনও কোনও পোস্টারে লেখা হয়েছে, 'দেখা নেই বিধায়কের/মহিষাদলের বিধায়ক কোথায়?'


এদিকে কে বা কারা এইসব পোস্টার মেরেছেন, জানা না গেলেও পোস্টার নিয়ে ভোট ঘোষণার ঠিক আগে আগেই শুরু হয়েছে শোরগোল! উল্লেখ্য, ২০১১ এবং ২০১৬, মহিষাদল বিধানসভা কেন্দ্রে পরপর দু' বার তৃণমূলের জোড়াফুল প্রতীকে ভোটে দাঁড়িয়ে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন সুদর্শন ঘোষ দস্তিদার।

মহিষাদলের তৃণমূল ব্লক সভাপতি তিলক চক্রবর্তী বলেন, 'উনি কখন আসেন, কখন যান আমাদের জানা নেই৷ উনি তো প্রখ্যাত চিকিৎসক, তাই হয়তো সেভাবে আসতে পারেন না৷ কিন্তু এই বিষয়টা নিয়ে সত্যিই সত্যিই মানুষের মধ্যে কিছুটা অভিমান আছে৷'

Sujit Bhowmik
Published by:Debamoy Ghosh
First published:

লেটেস্ট খবর