দলে থেকেই দলবিরোধী কাজ, তৃণমূল বহিস্কার করল শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ মোশারফকে

তৃণমূল থেকে বহিস্কৃত মোশারফ হোসেন।

রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছেন ১৯ ফেব্রুয়ারি কংগ্রেসে যেতে পারেন মোশারেফ।

  • Share this:

    #বহরমপুর: দলত্যাগ করতে পারেন, সূত্র মারফত খবর পেয়েই মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ সভাপতি মোশারেফ হোসেনকে বহিস্কার করল তৃণমূল। মোশারেফ শুভেন্দু ঘনিষ্ঠি বলে এলাকায় পরিচিত। যদিও বিজেপি নয়, মোশারেফ যেতে পারেন কংগ্রেসে।

    আজ মুর্শিদাবাদে তৃণমূল কার্যালয়ে একটি সাংবাদিক বৈঠক আয়োজিত হয়। সেখানেই মোশারেফকে বহিষ্কারের কথা জানান আবু তাহের খান। তিনি জানিয়ে দেন দলবিরোধী কার্য়কলাপে যুক্ত থাকার জন্যই মোশারফকে বহিস্কার করা হচ্ছে।

    প্রসঙ্গত তৃণমূলের সঙ্গে মোশারফের দূরত্ব বাড়ছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই। বহরমপুরে মমতার সভাতেও তাঁকে দেখা যায়নি। তখনই জল্পনা তৈরি হয়। দল থেকে খোঁজ নেওয়া শুরু হয়।  অনেকেই বলছেন, আবু তাহেরের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতির কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মোশারফ।

    রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছেন ১৯ ফেব্রুয়ারি কংগ্রেসে যেতে পারেন মোশারেফ। বহরমপুর -সহ মুর্শিদাবাদের বেশির ভাগ এলাকাই কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি। মোশারফের যোগদান কংগ্রেসকে ভোট টানতে সাহায্য করবে বলেই রাজনৈতিক মহলের ধারণা। প্রসঙ্গত মোশারফের সঙ্গেই কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন নীলরতন আঢ্য। ২০১৬ সালে তাঁকে তৃণমূলের এনেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। অধীর চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত নীলরতন ১৮ বছর বহরমপুর পুরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। এলাকায় তাঁর প্রভাব প্রতিপত্তি প্রশ্নাতীত, এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের।

    Published by:Arka Deb
    First published: