Home /News /south-bengal /
Arjun Singh: অর্জুনকে দেওয়া হবে গণসংবর্ধনা, জোড়া লক্ষ্যপূরণে সিদ্ধান্ত তৃণমূলের

Arjun Singh: অর্জুনকে দেওয়া হবে গণসংবর্ধনা, জোড়া লক্ষ্যপূরণে সিদ্ধান্ত তৃণমূলের

তৃণমূলে অর্জুন সিং৷

তৃণমূলে অর্জুন সিং৷

দলের নির্দেশ তাই ক্ষোভ প্রশমন করে অর্জূনের সঙ্গেই মাঠে নেমে একসঙ্গে লড়ার পরামর্শ নেতৃত্বের। 

  • Share this:

#ব্যারাকপুর: অর্জুন সিং এখন তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য। বিজেপি-র সঙ্গে তাঁর আর কোনও যোগ নেই৷ উত্তর ২৪ পরগণার দলীয় নেতৃত্ব, কর্মীদের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে এই বার্তা পৌঁছে দিতে চায় তৃণমূল নেতৃত্ব। তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের সফরের আগে প্রস্তুতি বৈঠকে এই বিষয়ে স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হয়েছে।

অর্জুনকে নিয়ে দলের কর্মীদের মধ্যে ছুৎমার্গ কাটাতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন পুরসভার পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে অর্জুন সিংকে। দলের ব্যাখ্যা একদিকে অর্জুন স্থানীয় সাংসদ, তাই তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়া হতেই পারে৷

আরও পড়ুন: অর্জুন-বিদায়ে কার দায়িত্বে ব্যারাকপুর, স্পষ্ট করল বিজেপি! আরও ভাঙনের আশঙ্কা

এর ফলে এতদিনের দূরত্ব মিটিয়ে প্রয়োজনে অর্জুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা সহজ হবে শাসক দলের কাউন্সিলরদের পক্ষে। তেমনই, অর্জুন যে এখন তৃণমূলে, সাধারণ মানুষের কাছে স্পষ্ট বার্তাও চলে যাবে।

উত্তর ২৪ পরগণা জেলা তৃণমূলের অন্যতম নেতা বিধায়ক পার্থ ভৌমিক জানিয়েছেন, 'পার্থ ভৌমিক - ভাটপাড়া ও জগদ্দলের পুরসভার সবাইকে বলব অর্জুন সিংকে ডেকে সংবর্ধনা দিন। যাতে বার্তা পৌঁছে যায় অর্জুন এখন তৃণমূলের সদস্য হয়েছে। আপনারা ২০২১ সালে যে পরিশ্রম করেছেন তাতে আপনাদের সদিচ্ছার কোনও অভাব নেই।'

আরও পড়ুন: রাগ-অভিমান মুছে আলিঙ্গন, অর্জুনকে নিয়ে কী বললেন মদন মিত্র

রাজ্যের বনমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগণা সংগঠনের অন্যতম নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, 'অর্জুনের যোগদান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঠিক সিদ্ধান্ত। লাগাতার ব্যারাকপুরে সংঘর্ষ হচ্ছিল। আমি ওকে বিজেপি-তে যেতে বারণ করেছিলাম। ফিরে আসায় আমাদের লাভ হল। সিপিএম-বিজেপি-কংগ্রেস একে অপরের দোসর। এদের একেবারে দুরমুশ করে দিতে হবে। আমাদের নিজেদের কোনও বিভাজন নেই। সৌগত রায়, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য কংগ্রেস অনেক দিন করেছেন৷ ওখানে যা গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চলত। এখানে আমাদের দলে তা নেই। অর্জুনকে বনগাঁর দায়িত্ব নিতে হবে। বিজেপি-কে সাফ করতে হবে। অর্জুন বিজেপির ছিল না। ও তাই ফিরে এল।'

অন্যদিকে ব্রাত্য বসু জানিয়েছেন, 'বিধানসভায় মাঝে মধ্যেই আলোচনা হত অর্জুনের দল ছাড়া নিয়ে। তবে অর্জূনের বদলে যাঁকে টিকিট দেওয়া হয়েছিল, সেটা যে ভুল ছিল সেটা প্রমাণিত। আমি আমার নেত্রী ও নেতার কথা শুনতে গেলে আমাকে জিততে হবে। এই ভোটের আগে ২০২১ সালে অভিষেক প্রাণপাত করেছে৷ কারণ ওটা ছিল মমতা বন্দোপাধ্যায়কে আবার মুখ্যমন্ত্রী করার ভোট। ২০২৪- এর ভোট হচ্ছে আরও কঠিন৷ কারণ মোদীকে প্রধানমন্ত্রী করা যাবে না। অভিষেক বন্দোপাধ্যায় তাই সঠিক সময়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ অর্জূন ঠিক সময়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। উনি সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা নিয়ে যা মন্তব্য করেছেন তা সঠিক৷ তাই স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে ৩০ তারিখ আমাদের লোক নিয়ে সভা করতে হবে৷ আগামী দু'বছর ধরে আমরা প্রচার চালাবো৷ পাটশিল্পকে নতুন করে বাঁচিয়ে তুলব। আমাদের অনেক দলীয় কর্মীদের উপরে অত্যাচার হয়েছে। সেই বিষয়কে ধিক্কার জানাই৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Arjun singh, TMC

পরবর্তী খবর