Home /News /south-bengal /

West Bengal Municipal Elections: বাড়ি বাড়ি প্রচার নয়, তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চাইছেন 'টেলি কলার'

West Bengal Municipal Elections: বাড়ি বাড়ি প্রচার নয়, তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চাইছেন 'টেলি কলার'

তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চেয়ে ফোন করছেন দলের মহিলা কর্মীরা৷

তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চেয়ে ফোন করছেন দলের মহিলা কর্মীরা৷

করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের বদলে রীতিমতো টেলি কলারের মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছেন চন্দননগর পুরসভার এক তৃণমূল প্রার্থী৷

  • Share this:

    #চন্দননগর: পুরসভা নির্বাচনে ভার্চুয়াল প্রচারের উপরেই জোর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারে হ্রাস টানতে চাইছেন সচেতন অনেক প্রার্থীও (West Bengal Municipal Elections)৷

    করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের বদলে রীতিমতো টেলি কলারের মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছেন চন্দননগর পুরসভার এক তৃণমূল প্রার্থী৷ তবে পেশাদারি কোনও টেলি কলার নন, দলের মহিলা কর্মীদের কাজে লাগিয়েই ফোনে ফোনে প্রচার সারছেন তিনি৷

    আরও পড়ুন: 'নির্বাচন বন্ধের কথা বলেননি অভিষেক', বিতর্কে ইতি টানতে দাবি সৌগতর

    শিলিগুড়ি, বিধাননগর, আসানসোলের সঙ্গে আগামী ২২ জানুয়ারি চন্দননগরেও পুরভোট হওয়ার কথা৷ ভোট প্রচারে অভিনবত্ব নিয়ে এলেন ২ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী মোহিত নন্দী৷ বাড়ি বাড়ি না গিয়ে আপাতত দলের মহিলা কর্মীদের দিয়েই ভোটারদের ফোন করে প্রচার সারছেন তিনি৷

    করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে পাঁচ জনকে নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের অনুমতি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ তৃণমূল প্রার্থী মোহিত নন্দীর অবশ্য দাবি, এমন পরিস্থিতি যে হতে পারে তা আগেভাগে আঁচ করেই ব্যবস্থা নিয়েছিলেন তিনি৷ ভোটারদের নাম, ফোন নম্বরও সংগ্রহ করে নিজের মতো করে তথ্যভান্ডার তৈরি করে ফেলেছিলেন৷ এখন তারই সুফল পাচ্ছেন তিনি৷

    আরও পড়ুন: কংগ্রেস 'শ্রেণিশত্রু'! সুর চড়িয়ে যাদবপুরে মিছিল করল এসএফআই

    তৃণমূল প্রার্থী বলেন, 'প্রচারে যে বিধিনিষেধ আরোপ হতে পারে, তা আগেই আন্দাজ করতে পেরেছিলাম৷ এখন বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করলে মানুষও ভয় পাবেন৷ সে কারণেই ফোন করে প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ মেসেজ পাঠালে বা ভয়েস রেকর্ডিং করে পাঠালে তার মধ্যে আন্তরিকতা থাকে না৷ সেই কারণেই প্রত্যেককে ফোন করা হচ্ছে৷'

    মোহিতবাবু জানিয়েছেন, দলের মহিলা কর্মীরা স্বেচ্ছাতেই এই কাজ করছেন৷ প্রত্যেককে নতুন সিম কার্ড দেওয়া হয়েছে৷ প্রচারের সময় মানুষ তাঁদের সমস্যার কথাও জানাচ্ছেন৷

    Saikat Biswas

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Covid ১৯, TMC

    পরবর্তী খবর