তৃণমূল- বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র বেলুড়! গুলি, বোমাবাজির সঙ্গে বাইকে আগুন

রণক্ষেত্র জি টি রোড৷

  • Share this:

#বেলুড়: তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হাওড়ার বেলুড়৷ এলাকায় জি টি রোডের উপরেই সকাল থেকে উত্তেজনা ছড়ায়৷ এমন কি গুলি চলেছে বলেও অভিযোগ৷ বেশ কয়েকটি বোমাও পড়েছে এলাকায়৷ ভাঙচুর করে কয়েকটি বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় নামানো হয়েছে র‍্যাফ৷ যদিও গোটা ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ফের একবার প্রশ্ন উঠেছে৷ পুলিশ ব্যবস্থা নিতে দেরি করাতেই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে বলে অভিযোগ৷

জানা গিয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায়ে বেলুড়ে বিজেপি-র একটি সভায় পতাকা লাগানো নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত৷ পতাকা লাগাতে গেলে বিজেপি কর্মীদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ৷ সেই ঘটনার প্রতিবাদে এ দিন সকাল থেকে জি টি রোড অবরোধ করেন বিজেপি সমর্থকরা৷ অভিযোগ, অবরোধ চলাকালীনই বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপরে বাঁশ, লাঠি নিয়ে হামলা চালান তৃণমূল সমর্থকরা৷ বিজেপি সমর্থকদের রীতিমতো তাড়া করা হয়৷ দু' পক্ষে শুরু হয় ইটবৃষ্টি৷ এমন কি, হামলাকারীদের হাতে বন্দুকও দেখা গিয়েছে বলে অভিযোগ৷ সংঘর্ষ চলাকালীন গুলি চলে, শুরু হয় বোমাবাজি৷ এমন কি লাঠি হাতে রাস্তায় নামতে দেখা যায় বেশ কিছু মহিলা তৃণমূল সমর্থককেও৷ ঘটনার সময় আতঙ্কে বাইক ফেলেই পালিয়ে যান বাজারে আসা বেশ কিছু সাধারণ মানুষ৷ অভিযোগ, বিজেপি সমর্থকদের বাইকের পাশাপাশি সেই বাইকগুলিতে ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়৷

ঘটনার শুরুর দিকে খুব কম সংখ্যক পুলিশকর্মী ঘটনাস্থলে ছিলেন৷ ফলে তাঁদের পক্ষে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া মুশকিল হয়৷ পরে এলাকায় যায় বিশাল পুলিশবাহিনী, নামানো হয় র‍্যাফ৷ রাস্তা পরিষ্কার করে যান চলাচল শুরু করে পুলিশ৷

পুলিশ বিষয়টি দেখছে বলে বিষয়টি নিয়ে খুব বেশি মন্তব্য করতে চাননি হাওড়ায় তৃণমূলের চেয়ারম্যান এবং মন্ত্রী অরূপ রায়৷ অন্যদিকে তৃণমূল থেকে সদ্য বহিষ্কৃত বালির বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া এই ঘটনার জন্য স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলরকেই দায়ী করেছেন৷ তাঁর দাবি, হামলার জেরে বিজেপি-র বেশ কিছু কর্মী হাসপাতালে ভর্তি৷ তৃণমূলের এই কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধেই তিনি দলে থেকে সরব হয়েছিলেন বলে দাবি বৈশালীর৷ ঘটনার জন্য তৃণমূলকেই দায়ী করেছেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু৷

 Debashish Chakraborty

Published by:Debamoy Ghosh
First published: