বিজেপির সদস্য গ্রহণ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র বারাকপুরের এপিসি কলেজ

টিএমসিপি-এবিভিপি সংঘর্ষে নিউ বারাকপুরের এপিসি কলেজে উত্তেজনা। আহত দুপক্ষের কয়েকজন ছাত্র।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 30, 2019 03:47 PM IST
বিজেপির সদস্য গ্রহণ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র বারাকপুরের এপিসি কলেজ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 30, 2019 03:47 PM IST

#বারাকপুর: টিএমসিপি-এবিভিপি সংঘর্ষে নিউ বারাকপুরের এপিসি কলেজে উত্তেজনা। আহত দু'পক্ষের কয়েকজন ছাত্র। এবিভিপি কলেজের অধ্যক্ষককে স্মারকলিপি দিতে গেলে টিএমসিপি হামলা চালায় বলে অভিযোগ। কোচবিহারের মোয়ামারিতেও বিজেপি পার্টি অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার থেকে নিউ বারাকপুরের এপিসি কলেজে চলছে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান। অভিযোগ, সেদিন টিএমসিপির কয়েকজন ছাত্র এবিভিপির কয়েকজন ছাত্রকে মারধর করেন।

কলেজে ভরতিতে স্বজনপোষণ-সহ শুক্রবারের ঘটনার প্রতিবাদে এদিন প্রিন্সিপালের কাছে ডেপুটেশন দিতে যায় এবিভিপি। ডেপুটেশন জমা দিয়ে ফেরার সময় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ছাত্ররা এবিভিপির ছাত্রদের বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। অভিযোগ, তৃণমূল কাউন্সিলরের নেতৃত্বে হামলা হয়। সংঘর্ষে জখম হয় দু'পক্ষের কয়েকজন। তাঁদের সোদপুর স্টেট জেনােরল হাসপাতালে ভরতি করা হয়। প্রতিবাদে বিজেপি ও এবিভিপির সদস্যরা কলেজের সামনে সোদপুর-মধ্যমগ্রাম রোড অবরোধ করেন। পুলিশ এসে এলাকা থেকে দু'পক্ষকে হঠিয়ে দেয়। কলেজের গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে র‍্যাফ নামে।

সোমবার সকালে কোচবিহারের মোয়ামারিতে বিজেপির সদস্যকরণ অভিযানকে কেন্দ্র করে অশান্তি শুরু হয়। বিজেপির অভিযোগ, সদস্যকরণ অভিযানে বাধা দেয় তৃণমূল। প্রতিবাদ জানালে বিজেপির পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালানো হয়। প্রতিবাদে সাতমাইল এলাকা অবরোধ করে বিজেপি। কোচবিহার থেকে মাথাভাঙায় যাওয়ার রাস্তা অনেকক্ষণ বন্ধ থাকে। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ ওঠে। পালটা বিজেপির বিরুদ্ধেও হামলার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল।

First published: 03:47:58 PM Jul 30, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर