• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • কালনায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে ঘর মেরামতের জন্য আর্থিক সাহায্য দেওয়া হল

কালনায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে ঘর মেরামতের জন্য আর্থিক সাহায্য দেওয়া হল

ঘর মেরামতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এই চেক দেওয়া হয়েছে বলে এলাকার বাসিন্দা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন।

ঘর মেরামতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এই চেক দেওয়া হয়েছে বলে এলাকার বাসিন্দা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন।

ঘর মেরামতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এই চেক দেওয়া হয়েছে বলে এলাকার বাসিন্দা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: কালনায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলির হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দিল জেলা প্রশাসন। আগুনে বাড়ি পুড়ে যাওয়া ২৫টি পরিবারের হাতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চেক তুলে দেওয়া হয়। প্রতিটি পরিবারকে ১৫ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়। ঘর মেরামতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এই চেক দেওয়া হয়েছে বলে এলাকার বাসিন্দা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ক্ষতিগ্রস্তরা অধিকাংশই খেতমজুর পরিবারের সদস্য। ঘর হারিয়ে খুব সমস্যার মধ্যে রয়েছেন তাঁরা। ইতিমধ্যেই তাদের কাছে ত্রিপল সহ অন্যান্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। অনেকেরই হাঁস,মুরগি,ছাগল আগুনে পুড়ে মারা গিয়েছে। তাদের হাতে খুব তাড়াতাড়ি হাঁস,মুরগি,ছাগল প্রাণিসম্পদ বিকাশ দফতরের পক্ষ থেকে তুলে দেওয়া হবে।

কালনা থানার কাঁকুরিয়া পঞ্চায়েতের কৈলাসপুরে শনিবার ওই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে পঁচিশটি মাটির বাড়ি পুড়ে যায়। গৃহহীন  হয়ে পড়ে বাসিন্দারা। সেই পরিবারগুলিকে চিহ্নিত করে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে জেলা প্রশাসন। কালনা এক নম্বর ব্লকের সভাকক্ষে এই সাহায্য প্রদান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন এলাকার বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলাশাসক মহম্মদ এনাউর রহমান, সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক সেবন্তী বিশ্বাস-সহ প্রশাসনিক  অন্যান্য  আধিকারিকরা।

পনেরো হাজার টাকা করে চেক দেওয়ার পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন, ত্রাণ সামগ্রী ও আর্থিক সাহায্যের আশ্বাস আগেই দিয়েছিলাম। সরকার তথা জেলা প্রশাসন তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এলাকার এই গরীব মানুষদের সাহায্যের জন্য স্থানীয় বাসিন্দারাও এগিয়ে এসেছেন। লঙ্গরখানা খুলে তাদের সেখানে খাওয়ানো হচ্ছে। সেই সঙ্গে আগামী দিনে তাদের বাংলা আবাস যোজনায় ঘর দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। আপাতত ঘর তৈরির জন্য পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বাঁশ ও অন্যান্য সামগ্রী দেওয়া হবে। নিজেরা ঘর তৈরি করে নিলে তাদের একশো দিনের কাজ প্রকল্পে মজুরি দেওয়া হবে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: