সম্প্রীতির নজির ! মা কালীর খুঁটিপুজো-মহরম একই দিনে, থাকছে বাহুবলি সিনেমার দৃশ্যও

সম্প্রীতির নজির ! মা কালীর খুঁটিপুজো-মহরম একই দিনে, থাকছে বাহুবলি সিনেমার দৃশ্যও
  • Share this:

#বীরভূম: সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির আব্বাস কালীর খুঁটিপুজো, মহরমের দিনেই। বীরভ দুর্গাপুজো নয় কালীপুজোর খুঁটি পুজো করে নিলো রামপুরহাট ডাকবাংলা পাড়া প্লেয়ার্স আ্যাসোসিয়েশ্যান দীর্ঘ ৫১ বছর থেকে চলে আসা এই পুজো খ্যাত হয়ে যায় আব্বাস কালী নামে। বছর ২০ আগে থেকেই এই পুজোর দায়িত্ব নেন আব্বাস হোসেন।

আব্বাস তিনবারের পুরসভার কাউন্সিলার,ও একবারের ভাইস চেয়ারম্যান। যেদিন থেকে কালী পুজোর দায়িত্ব নিয়েছেন সেদিন থেকেই পুজো শহর ছাড়িয়ে মহকুমা, মহকুমা ছাড়িয়ে জেলার সেরা কালী পুজোর শিরোপা অর্জন করে চলেছে। তবে সবচেয়ে বেশি বাজটে পুজো হয়েছে গত বছর । ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ৭৫ লক্ষ টাকা খরচ করে বাহুবলি সিনেমার বিভিন্ন অংশ তুলে ধরেন মৃত শিল্পীরা প্রায় চার মাস ধরে কাজ করেছিলেন শিল্পীরা ।

এবারেও চমক আব্বাস কালী পুজো তে। প্রায় একই বাজটে পুজো হচ্ছে বলে জানান কর্ণধার আব্বাস হোসেন। এবারের থিম ইসকনের মন্দিরের আদলে তৈরি হবে প্যান্ডেল শিল্পীরা মেদিনীপুর থেকে চলে এসছেন ইতিমধ্যে ।মুর্তি তৈরি করবেন কুমোরটুলির শিল্পী, লাইট করবেন চন্দননগরের শিল্পী। আব্বাস কালী নাম কি করে হল জানতে চাওয়ায় ?

আব্বাস হোসেনের জবাব মানুষ ভালোবেসে আমার নামেই নাম দিয়ে দিয়েছন। তবে আমি চেষ্টা করি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে। সেকারনেই মহরমের দিনে পুজোর খুঁটি পুজো করলাল। দিনে খুটি পুজো করে রাত্রে আমাদের সমস্ত সদস্য মিলে মহরমে অংশগ্রহণ করো। আমাদের সদস্য হিন্দু মুসলিম সকলে আছেন। আমাদের এই ডাকবাংলা পাড়া প্লেয়ার্স আ্যাসোসিয়েশ্যান সর্বদা সম্প্রীতির নজির রেখে চলে ভবিষ্যতে চলবে।

First published: September 9, 2019, 8:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर