Home /News /south-bengal /
লকডাউনে সকলকে ঘরে আটকাতে অভিনব পথ বেছে নিল মেচেদার কিছু মানুষ !

লকডাউনে সকলকে ঘরে আটকাতে অভিনব পথ বেছে নিল মেচেদার কিছু মানুষ !

সকলের হাতে গোলাপ ফুল তুলে দিয়ে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে সচেতনতার বার্তা দেন।

  • Share this:

#মেচেদা: স্থানীয় এক সেচ্ছাসেবী সংস্থার উদ্যোগ এবং কোলাঘাট থানা ও শান্তিপুর গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তাদের  সহযোগিতায় আজ পথচলতি মানুষের হাতে হাতে তুলে দেওয়া হলো গোলাপ ফুল। করোনা নিয়ে মানুষকে  সচেতন করতেই আজ এই উদ‍্যোগ নেওয়া হয় মেচেদায়।বর্তমানে গোটা বিশ্বের মানুষের কাছে ত্রাস নোভেল করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসের প্রভাব থেকে সবাইকে মুক্ত করতে ইতিমধ্যেই গোটা দেশে লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সরকারের তরফ থেকে সাধারণ মানুষকে ঘরবন্দি থেকে করোনা নিয়ে সচেতন হওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পুর্ব মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন জায়গায় দেখা যাচ্ছে এই নির্দেশ অমান্য করে একাংশ মানুষ অকারণে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করছেন। সরকারি নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখানোর কারণে করোনা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। এই ধরনের অসচেতন পথচলতি মানুষদের সচেতন করতে তাই অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করল  মেচেদার কিছু মানুষ। যাদের উদ্যোগের পাশে ছিলেন কোলাঘাট থানা ও শান্তিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সহ অন্যান্যরা।

বৃহস্পতিবার তারাই মেচেদার বিভিন্ন প্রান্তে পথচলতি মানুষদের হাতে গোলাপ ফুল ধরিয়ে দিয়ে করোনা নিয়ে সচেতন করেন এবং রাস্তায় না বেরোনোর অনুরোধও করেন। লক্ষ্য মানুষের জন্য কাজ করা, করোনায় হাত থেকে মানুষের জীবন বাঁচানো। যার জন্য প্রয়োজন সাধারণ মানুষকে সচেতন করা। ইতিমধ্যে সরকারের তরফ থেকে নির্দেশিকায় সাধারণ মানুষকে ঘরবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং কেন্দ্রীয় সরকার পূর্ব মেদিনীপুর জেলাতে করোনা পজেটিভ বেশ কিছু আক্রান্ত রুগীর খোঁজ পাওয়ার কারনে  রাজ্যের বেশ কয়েকটি জেলার সঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুর জেলাকেও হটস্পট  এলাকা ঘোষণা করেছে। কিন্তু সবাই সেটা মানছেন না। বাজার হাট চায়ের দোকানে অবাঞ্ছিত ভিড় যা সংক্রমন বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ হয়ে উঠছে। তাই সাধারণ সেইসব  মানুষদের সচেতন করতে অভিনব গান্ধীগিরি পদ্ধতি বেছে নিল মেচেদার বন্ধুরা। স্থানীয় কয়েকজন বন্ধু মিলে নিজেরা সরকারি নির্দেশ মেনে মুখে মাস্ক পরে পথচলতি মানুষদের সচেতন করেন এদিন। মেচেদার থার্মাল গেট, মেচেদা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ড সহ বিভিন্ন এলাকায়  বৃহস্পতিবার ঘুরে ঘুরে পথচলতি মানুষদের হাতে গোলাপ দিয়ে সচেতন করেন।  সহযোগিতা করেন কোলাঘাট থানার পুলিশ আধিকারিক শান্তিময় নন্দী ও শান্তিপুর এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সেক সেলিম আলি । পথ চলতি মানুষ, মহিলা বাইক আরোহী থেকে ছোটো গাড়ির চালক গাড়ি চালক,  সকলের হাতে গোলাপ ফুল তুলে  দিয়ে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে সচেতনতার বার্তা দেন। সবাইয়ের আবেদনও করেন, খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বেরোবেন না। বাড়িতে থাকুন, সুস্থ থাকুন সরকারি ও স্বাস্থ্য দফতর এর নিয়ম মেনে চলুন। বন্ধুদের এই ধরনের উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এদিনএর কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে পঞ্চায়েত প্রধান সেলিম আলী ও কোলাঘাট থানার পুলিশ অফিসার শান্তিময় নন্দী নিজেই গোলাপ ফুল হাতে তুলে সাধারণ মানুষকে সচেতন করেন। মেচেদার কয়েকজন বন্ধু মিলে লকডাউনের শুরু থেকেই ২৪ দিন ধরে দুবেলা রান্না করা খাওয়ার খাইয়ে আসছেন এলাকার ভবঘুরে ভিক্ষুক মেছেদা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ড এ আটকে থাকা যাত্রীদের।  এলাকার সাররমেয়দের জন্যও খাওয়ারের ব্যবস্থা করেছেন। সাধারণ মানুষের হাতে খাওয়ার তুলে দিতে এগিয়ে আসে তাঁরা।  ইতিমধ্যেই তাঁরা তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে গরীব দুস্থ সাধারণ মানুষের মুখে খাওয়ার তুলে দিয়েছেন।  আগামীদিনেও এই ধারা বজায় রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তাঁরা। মুমূর্ষু রোগীদের রক্তের অভাবে মৃত্যু আটকাতে এই সেচ্ছাসেবকরাই রক্তদান শিবিরেরও আয়োজন করেছেন। মেচেদার এই বন্ধুগোষ্ঠী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সকলেই।

SUJIT BHOWMIK

Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Coronavirus, Lockdown, Mecheda

পরবর্তী খবর