মহাভারত থেকে ভারতের স্বাধীনতার আন্দোলন, পুজোয় গল্প বলবে এই রাজবাড়ি

ইতালি থেকে এসেছিলেন আট মিস্ত্রি। তাঁরাই তৈরি করেছিলেন এই খিলান। ঐতিহ্য নিয়ে যা ২০০ বছর পরেও অটুট।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 25, 2019 04:08 PM IST
মহাভারত থেকে ভারতের স্বাধীনতার আন্দোলন, পুজোয় গল্প বলবে এই রাজবাড়ি
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 25, 2019 04:08 PM IST

#তমলুক: এই পুজোয় এক রাজবাড়ির গল্প। খুব দূরে নয়। কলকাতা থেকে মাত্র কয়েক ঘণ্টার পথ। ওই বাড়ি মহাভারতের কথা বলে। বলে স্বাধীনতা আন্দোলনের গপ্পো। কোথায় ? চলুন আমাদের সঙ্গে।

তাম্রলিপ্ত। মানে ইতিহাসের মাখামাখি। একসময় বাংলার বন্দর শহর জায়গা করেছিল ফা-হিয়েন, টলেমি, প্লিনির লেখায়। একদিন এই শহর থেকেই বৌদ্ধধর্মের প্রচারে সিংহল গিয়েছিলেন সম্রাট অশোকের ছেলে মহেন্দ্র আর মেয়ে সংঘমিত্রা। তারও প্রাচীন সময় থেকে দাঁড়িয়ে এই বাড়ি। তমলুক রাজবাড়ি। বয়স কত? ইতিহাস জানে। আর বলে, প্রায় চার হাজার বছর।

ইতালি থেকে এসেছিলেন আট মিস্ত্রি। তাঁরাই তৈরি করেছিলেন এই খিলান। ঐতিহ্য নিয়ে যা ২০০ বছর পরেও অটুট। মহাভারত থেকে ভারতের স্বাধীনতার আন্দোলন। আজও এই বাড়ির দেওয়ালে কান পাতলে শোনা যায় সেই গল্প। এই বাড়ির ছেলে দীপেন্দ্রনারায়ণ। ৬৩তম প্রজন্ম। তাঁর মুখেই শুনলাম, মহাভারতের কথা।

পুজোয় তমলুক মানে বর্গভীমার মন্দির। এই বাড়িও কম কিছু নয়। ঐতিহাসিক এই বাড়িতেই একদিন সভা করেছিলেন তৎকালীন কংগ্রেস সভাপতি সুভাষচন্দ্র বসু। এই বাড়ি থেকেই রাজনীতিতে হাতেখড়ি হয়েছিল সতীশ সামন্ত, সুশীল ধারার মতো ব্যক্তিত্বের।

এত ইতিহাস। এত গল্প। তবুও অবহেলার লাঞ্ছনা। কেউ কথা রাখেনি।

Loading...

এলাকার মানুষের কাছে আজও এই বাড়ি জীবন্ত ইতিহাস। আধুনিক তমলুকের গর্ব।

First published: 04:08:47 PM Sep 25, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर