রাতের অন্ধকারে নন্দীগ্রামের শুভেন্দু অধিকারী, আলো ফোটার আগেই সেরে ফেললনে শহিদ স্মরণ!

রাতের অন্ধকারে নন্দীগ্রামের শুভেন্দু অধিকারী, আলো ফোটার আগেই সেরে ফেললনে শহিদ স্মরণ!

রাতের অন্ধকারেই নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারী।

৭ তারিখ ভোরের আলো ফোটার আগে শহিদ স্মরণের অনুষ্ঠান সেরে ফেললেন তিনি।

  • Share this:

 #নন্দীগ্রাম: মধ্যরাতে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারী।  ৭ তারিখ ভোরের আলো ফোটার আগে শহিদ স্মরণের অনুষ্ঠান সেরে ফেললেন তিনি।ভাঙাবেড়িয়ায় শহিদ বেদিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানালেন শুভেন্দু অধিকারী। কার্যত নন্দীগ্রামে শহিদ দিবস পালনে তিনি বিজেপির প্রতিনিধিত্ব করলেন

২০০৭ সালের আজকের দিন, অর্থাৎ ৭ জানুয়ারি ভোর রাতে জমি রক্ষার আন্দোলনে যোগ দিয়ে মৃত্যু হয়েছিল তিন নন্দীগ্রামবাসী ভরত, সেলিম ও বিশ্বজিৎ এর। তাঁদেরই স্মরণে প্রতি বছরই ভোরবেলায় ভাঙাবেড়িয়ায় শহিদ বেদিতে মালা আর ফুল দেন শুভেন্দু অধিকারী। এবারও তার অন্যথা হল না। এলেন সময়ের আগে।

বুধবার গভীর রাতে ভাঙাবেরিয়ায় হাজির হন তিনি। ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে মানুষজনকে সঙ্গে নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করলেন। শুভেন্দুর উপস্থিতির সঙ্গে সঙ্গে শহিদ স্মরণে শ্লোগান দিতে থাকেন উপস্থিত মানুষজন। তিনি বলেন, নন্দীগ্রামের শহিদদের শ্রদ্ধা আগেও জানিয়ে এসেছেন, আজও জানালেন, আগামী দিনেও জানাবেন। তিনি বলেন, যতদিন বাঁচবেন, ততদিনিই নন্দীগ্রামের এইসব বিশেষ দিনে হাজির থাকবেন নন্দীগ্রামে।বুধবার রাত ১১ টা ৪০ মিনিট নাগাদ নন্দীগ্রামের ভাঙ্গাবেড়া শহীদ মিনারে মাল্যদান করলেন শুভেন্দু অধিকারী।

নন্দীগ্রামের ভাঙবেড়িয়া শহিদ বেদিতে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু বললেন, "অনেকেই প্রচার করেছিলেন আমি নাকি নন্দীগ্রামের শহিদ বেদিতে মালা দিতে আজকে আসতে পারবো না। শহিদদের শ্রদ্ধা জানাতে সাত জানুয়ারি আগেও এসেছি, আজও এলাম। অন্য কেউ কেউ বিগত দিনে আসেনি, আগামী দিনেও আসবে না, বিধানসভা ভোটের কারনেই তাঁরা এবার আসছেন। কিন্তু আমি চিরকালই আসব।"

Published by:Arka Deb
First published:

লেটেস্ট খবর