• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • SUVENDU ADHIKARI EXPLAINS REASON OF UNEXPECTED RESULT IN ASSEMBLY ELECTION BY BJP SANJ

Suvendu Adhikari : ‘আত্মতুষ্টিতে ভুগেছেন অনেক নেতাই’, দলের হার বিশ্লেষণে কাদের কটাক্ষ শুভেন্দু অধিকারীর?

বিশ্লেষণ ও আক্রমণে শুভেন্দু

Suvendu Adhikari : ফলপ্রকাশের এতদিন পর এবার তিনি হারের বিশ্লেষণে নামলেন। চাঁদিপুরের সভা থেকে তিনি হারের বিশ্লেষণে বক্তব্য রাখলেন রবিবার।

  • Share this:

    #কলকাতা : একুশের নির্বাচনে প্রত্যাশামতো ফলাফল তো হয়ইনি। টার্গেট থেকে অনেক দূরেই থেমে গিয়েছে বিজেপির (BJP) জয়ের রথ। দেড়শো আসন জয়ের স্বপ্ন থেমেছে ঠিক অর্ধেকে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে মাত্র ৭৫ টি আসনে জিতে বিরোধী দলের তকমা পেয়েই সান্ত্বনা পুরস্কার জুটেছে দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারীদের। যদিও নন্দীগ্রামের মতো হাইভোল্টেজ আসনে জিতে বিরোধী দলনেতা হয়ে সম্মানরক্ষা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। ফলপ্রকাশের এতদিন পর এবার তিনি হারের বিশ্লেষণে নামলেন। চাঁদিপুরের সভা থেকে তিনি হারের বিশ্লেষণে বক্তব্য রাখলেন রবিবার। এর আগে একুশের বিধানসভা ভোটে (WB Assembly Polls 2021) দলের হার নিয়ে গেরুয়া শিবিরের অনেকেই মুখ খুলেছেন। এবার স্বয়ং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

    দলীয় নেতা, কর্মীদের উদ্দেশে শুভেন্দুর বক্তব্য, ”আত্মতুষ্টিতে ভুগেছেন অনেকে। কারও অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ছিল। কেউ ভেবেছেন, ভগবানপুর জিতেছি, খেজুরি জিতেছি, অন্যত্র হারলে হারুক। এভাবেই ২৯৪ আসনের মধ্যে জয়ের হিসেবে ভুল হয়েছে। আপনারা অনেকেই নিজেদের প্রার্থীদের নিয়ে খারাপ কথা বলেছেন। নিজেদের নাক কেটে যাত্রাভঙ্গ করেছেন।” এভাবে দোষারোপের পর অবশ্য দলীয় কর্মীদের চাঙ্গা করার বার্তাও দিয়েছেন তিনি। বলেন, ”এখন গেরুয়া পতাকাটা জোরে আঁকড়ে ধরে লড়াই করতে হবে। দেশটাকে দ্বিতীয় বাংলাদেশ হওয়া থেকে বাঁচাতে হলে সেটাই কর্তব্য আমাদের।”

    তবে এখনই থামেননি বিরোধী দলনেতা। দলকে চাঙ্গা করতে কর্মীদের উদ্দেশ তাঁর বার্তা, ”বিভিন্ন জায়গায় বলা হচ্ছে, এ চলে যাচ্ছে, ও চলে যাচ্ছে। এতে দলের শক্তি কমছে। এসব নিয়ে একটুও বিচলিত হওয়ার দরকার নেই। কেউ ভাববেন না। এতে দলের কোনও ক্ষতি হবে না। মুকুল রায় (Mukul Roy) কত বড় নেতা? কখনও তো ভোটে জেতেননি।”

    প্রসঙ্গত, গত রবিবারে তমলুকের এক সভায় শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন, ২০১৬ সালে তিনটি আসন থেকে এবার ৭৭ টি আসন। ভোটের শতাংশে ১০.৫% থেকে ৩৮.১০ %। ভোটে হার নয়, ফলাফলকে জয় বলেই কার্যত অভিহিত করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: