দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'হারাবোই হারাব৷' পরিবর্তনের পরিবর্তন করার ডাক দিলেন শুভেন্দু

'হারাবোই হারাব৷' পরিবর্তনের পরিবর্তন করার ডাক দিলেন শুভেন্দু
শুভেন্দু অধিকারী৷ Photo-File
  • Share this:

#কেতুগ্রাম: হারাবোই হারাব৷ কেতুগ্রামের সভা থেকে এমনই হঙ্কার ছাড়লেন শুভেন্দু অধিকারী৷ পরিবর্তনের পরিবর্তন করারও ডাক দিয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও বিধায়াক৷ বরং তাঁর দাবি, কোনও শর্ত ছাড়াই তিনি বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন৷ বিজেপি-তে যোগদানের পর কেতুগ্রামের সভা থেকে এমনই দাবি করলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তিনি বলেন,'বিজেপি-তে যোগ দেওযার জন্য দেওয়ার আগে একটাই শর্ত দিয়েছি, তোলাবাজ ভাইপোর হাত থেকে বাংলাকে বাঁচান৷'

একই সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার যে অভিযোগ তৃণমূল তুলেছে, ফের তার জবাব দিয়েছেন শুভেন্দু৷ তিনি বলেন, মন্ত্রিত্ব, বিধায়কর এমন কি, তৃণমূলের সদস্যপদ ছেড়ে একজন সাধারণ ভোটার হিসেবে তিনি বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন৷ ফলে তাঁর বিরুদ্ধে অনৈতিকতার অভিযোগ তোলা যায় না৷

এ দিন বিজেপি-র উপরে তৃণমূলের নির্ভরশীলতার কথা মনে করিয়ে দিয়েও পুরোন দলকে বিঁধেছেন শুভেন্দুষ৷ তিনি বলেন, ১৯৯৮ সালে তৃণমূল তৈরির পর অটলবিহারী বাজপেয়ী- লালকৃষ্ণ আডবাণীরা আশ্রয় না দিলে ২০০১ সালেই তৃণমূল দলটা উঠে যেত৷ ২০০৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে যখন কেউ লক্ষ্মণ শেঠের বিরুদ্ধে তমলুক আসন থেকে দাঁড়াতে চাননি, তখন তিনিই এনডিএ-এর সমর্থন নিয়ে তৃণমূলের টিকিটে লড়ার সাহস দেখিয়েছিলেন বলেও মনে করিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু৷ পাশাপাশি দাবি করেছেন, অন্য কোনও দল না গেলেও অশান্ত নন্দীগ্রামে গিয়েছিলেন লালকৃষ্ণ আডবাণী, সুষমা স্বরাজ, রাজনাথ সিং-রা৷ নন্দীগ্রাম ইস্যুতে এনডিএ-এর সাংসদরাই ৬২ দিন ধরে লোকসভা, রাজ্যসভা অচল করে রেখেছিল বলেও দাবি শুভেন্দুর৷

শুভেন্দু এ দিন অভিযোগ করেছেন, তৃণমূল দলটাই কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে৷ দু'-একজনের কথায় তা চলছে৷ আত্মসম্মান নিয়ে কারও পক্ষে তৃণমূলে থাকা সম্ভব নয় বলেও দাবি করেছেন শুভেন্দু৷ তিনি বলেন, বাংলায় এবার পরিবর্তনের পরিবর্তন করার জন্য তিনি লড়বেন৷ একজন সাধারণ ভোটার হিসেবেই তিনি বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন৷ হঙ্কার ছেড়ে শুভেন্দু বলেন, 'হারাবোই হারাব৷ সোনার বাংলা গড়ব৷''

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 22, 2020, 4:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर