• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • 'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়', বহিরাগত ইস্যুতেও খোঁচা শুভেন্দুর

'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়', বহিরাগত ইস্যুতেও খোঁচা শুভেন্দুর

বাঙালি জননেতা নেই৷ এই সঙ্কটেই দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিল রাজ্য বিজেপি৷ অন্য দল থেকে হলেও বাঙালি কোনও জননেতার খোঁজে ছিল বিজেপি নেতৃত্ব৷ শুভেন্দু অধিকারী দলে যোগ দিলে বিজেপি-র সেই সন্ধান অনেকটাই মিটবে, এ বিষয়ে একমত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা৷ সঙ্গে এই প্রশ্নও থাকছে, শুভেন্দু অধিকারীকে কীভাবে কাজে লাগাবে বিজেপি নেতৃত্ব?Photo-File

বাঙালি জননেতা নেই৷ এই সঙ্কটেই দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিল রাজ্য বিজেপি৷ অন্য দল থেকে হলেও বাঙালি কোনও জননেতার খোঁজে ছিল বিজেপি নেতৃত্ব৷ শুভেন্দু অধিকারী দলে যোগ দিলে বিজেপি-র সেই সন্ধান অনেকটাই মিটবে, এ বিষয়ে একমত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা৷ সঙ্গে এই প্রশ্নও থাকছে, শুভেন্দু অধিকারীকে কীভাবে কাজে লাগাবে বিজেপি নেতৃত্ব?Photo-File

  • Share this:

    #হলদিয়া: শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিলেন না৷ কিন্তু নাম না করেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ তৃণমূল নেতৃত্বকে কটাক্ষে ভরালেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তীব্র আক্রমণ করে বাংলায় গণতন্ত্র ফেরানোর ডাক দিয়ে বললেন, 'বাংলায় অফ দ্য পার্টি, বাই দ্য পার্টি চলছে৷ ' একই সঙ্গে তাঁর দাবি, নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়৷ তা ছিল মানুষের আন্দোলন৷ সূত্রের খবর, আগামী ১৯ ডিসেম্বর বিজেপি-তে যোগদান করবেন শুভেন্দু৷

    সম্প্রতি বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতাদের বহিরাগত বলে আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন নাম না করে তারও জবাব দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ স্বাধীনতা সংগ্রামী সতীশ সামন্তের জন্মদিন পালন করতে হলদিয়ায় গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'জওহরলাল নেহরু সতীশ সামন্তকে দেখলে উঠে দাঁড়াতেন৷ সতীশ সামন্ত জওহরলাল নেহরুকে বহিরগত ভাবতেন না৷ আবার জওহরলাল নেহরু সতীশ সামন্তকে অ-হিন্দিভাষী মনে করতেন না৷' ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে শুভেন্দু বলেন, 'আমরা প্রথমে ভারতীয়, তার পরে বাঙালি৷'

    স্বাধীনতা সংগ্রামে তাম্রলিপ্তে জাতীয় সরকার গঠনের সঙ্গে এ দিন নন্দীগ্রাম আন্দোলনের তুলনা করেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তিনি বলেন, 'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির ছিল না৷ কোনও দলের নয়, মানুষের আন্দোলন৷ তাম্রলিপ্তের ইতিহাস যদি পড়েন, তাহলে দেখবেন ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে মানুষ জাতীয় সরকার গড়তে যে আন্দোলন করেছিল, নন্দীগ্রাম আন্দোলনও তার ক্ষুদ্র সংস্করণ৷'

    শুভেন্দু আরও বলেন, 'আমরা ভাল কাজের জন্য লড়ব৷ দেশ মাতৃকার বন্দনা করব৷ বেকার যুবকের কর্মসংস্থান, কৃষকের অধিকার, বাংলায় গণতন্ত্র ফেরানোর জন্য লড়ব৷ পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র ফেরাতে হবে, কেন ফর দ্য পার্টি, বাই দ্য পার্টি ব্যবস্থা থাকবে?' নন্দীগ্রামের বিধায়ক আরও বলেন, কোনও পদের লোভ তিনি করেন না৷ মন্ত্রিত্ব ছাড়লেও তাঁর সভায় লোক হয়৷ তিনি বলেন, 'শুভেন্দু অধিকারী কোনও পদের লোভ করেন না৷ কেউ কেউ বলেছিলেন না পদ দেখিয়ে লোক আনছে৷ আমি মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরও আমার সভায় লোক আসছে৷ এই লোককে তৃণমূল কংগ্রেস, বিজেপি, সিপিএমস, কংগ্রেসের পদে যাঁরা আছে তাঁরা আনেনি৷ এঁদের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: