দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়', বহিরাগত ইস্যুতেও খোঁচা শুভেন্দুর

'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়', বহিরাগত ইস্যুতেও খোঁচা শুভেন্দুর
বরাবরই শুভেন্দু অধিকারীর মুখে পূর্ব মেদিনীপুরের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মতাদর্শের কথা শোনা গিয়েছে৷ এ দিনও তাঁর মুখে বার বার সেই কথাই শোনা গিয়েছে৷ উঠে এসেছে তাম্রলিপ্তে জাতীয় সরকার গঠনের ইতিহাস৷ এমন কি, জাতীয় সরকার গঠনের সেই লড়াইয়ের সঙ্গে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের তুলনাও টেনেছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ Photo-File
  • Share this:

#হলদিয়া: শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিলেন না৷ কিন্তু নাম না করেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ তৃণমূল নেতৃত্বকে কটাক্ষে ভরালেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তীব্র আক্রমণ করে বাংলায় গণতন্ত্র ফেরানোর ডাক দিয়ে বললেন, 'বাংলায় অফ দ্য পার্টি, বাই দ্য পার্টি চলছে৷ ' একই সঙ্গে তাঁর দাবি, নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়৷ তা ছিল মানুষের আন্দোলন৷ সূত্রের খবর, আগামী ১৯ ডিসেম্বর বিজেপি-তে যোগদান করবেন শুভেন্দু৷

সম্প্রতি বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতাদের বহিরাগত বলে আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন নাম না করে তারও জবাব দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ স্বাধীনতা সংগ্রামী সতীশ সামন্তের জন্মদিন পালন করতে হলদিয়ায় গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'জওহরলাল নেহরু সতীশ সামন্তকে দেখলে উঠে দাঁড়াতেন৷ সতীশ সামন্ত জওহরলাল নেহরুকে বহিরগত ভাবতেন না৷ আবার জওহরলাল নেহরু সতীশ সামন্তকে অ-হিন্দিভাষী মনে করতেন না৷' ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে শুভেন্দু বলেন, 'আমরা প্রথমে ভারতীয়, তার পরে বাঙালি৷'

স্বাধীনতা সংগ্রামে তাম্রলিপ্তে জাতীয় সরকার গঠনের সঙ্গে এ দিন নন্দীগ্রাম আন্দোলনের তুলনা করেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তিনি বলেন, 'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির ছিল না৷ কোনও দলের নয়, মানুষের আন্দোলন৷ তাম্রলিপ্তের ইতিহাস যদি পড়েন, তাহলে দেখবেন ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে মানুষ জাতীয় সরকার গড়তে যে আন্দোলন করেছিল, নন্দীগ্রাম আন্দোলনও তার ক্ষুদ্র সংস্করণ৷'

শুভেন্দু আরও বলেন, 'আমরা ভাল কাজের জন্য লড়ব৷ দেশ মাতৃকার বন্দনা করব৷ বেকার যুবকের কর্মসংস্থান, কৃষকের অধিকার, বাংলায় গণতন্ত্র ফেরানোর জন্য লড়ব৷ পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র ফেরাতে হবে, কেন ফর দ্য পার্টি, বাই দ্য পার্টি ব্যবস্থা থাকবে?' নন্দীগ্রামের বিধায়ক আরও বলেন, কোনও পদের লোভ তিনি করেন না৷ মন্ত্রিত্ব ছাড়লেও তাঁর সভায় লোক হয়৷ তিনি বলেন, 'শুভেন্দু অধিকারী কোনও পদের লোভ করেন না৷ কেউ কেউ বলেছিলেন না পদ দেখিয়ে লোক আনছে৷ আমি মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরও আমার সভায় লোক আসছে৷ এই লোককে তৃণমূল কংগ্রেস, বিজেপি, সিপিএমস, কংগ্রেসের পদে যাঁরা আছে তাঁরা আনেনি৷ এঁদের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক৷'

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 15, 2020, 5:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर