• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • SUPREME COURT GIVES TWO WEEK RELAXATION TO MAMATA BANERJEE ELECTION AGENT SK SUPIAN DMG

West Bengal Election 2021: দু' সপ্তাহের রক্ষাকবচ দিল সুপ্রিম কোর্ট, নন্দীগ্রামে ভোটের আগে স্বস্তি পেলেন শেখ সুফিয়ান

নন্দীগ্রামের তৃণমূল নেতা শেখ সুফিয়ান৷

২০০৭ সালে নন্দীগ্রামে জমি অধিগ্রহণ বিরোধী আন্দোলন শুরু হয়৷ সেই সময় বেআইনি জমায়েত এবং হিংসায় জড়ানোর অভিযোগে নন্দীগ্রামের এই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছিল৷

  • Share this:

    #দিল্লি: নন্দীগ্রামে ভোটের আগে বড় স্বস্তি পেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান৷ নন্দীগ্রামে জমি অধিগ্রহণ বিরোধী আন্দোলনে শেখ সুফিয়ানের বিরুদ্ধে পুরনো এফআইআর পুনর্বহাল করার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট৷ এ দিন সেই নির্দেশের উপরে ১৪ দিনের স্থগিতাদেশ জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট৷ এ দিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কৃষ্ণ মুরারির ডিভিশন বেঞ্চ এ দিন এই স্থগিতাদেশ জারি করেছেন৷

    ২০০৭ সালে নন্দীগ্রামে জমি অধিগ্রহণ বিরোধী আন্দোলন শুরু হয়৷ সেই সময় বেআইনি জমায়েত এবং হিংসায় জড়ানোর অভিযোগে নন্দীগ্রামের এই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছিল৷ যদিও তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর সেই মামলাগুলি প্রত্যাহার করে নেয়৷ কিছুদিন আগে ওই মামলাগুলি পুনরায় চালু করার দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন বিজেপি নেতা দীপক মিশ্র৷ গত ৫ মার্চ এই আবেদনের স্বপক্ষে রায় দেয় কলকাতা হাইকোর্ট৷ নতুন করে ওয়ারেন্ট জারি হওয়ায় নন্দীগ্রামে ঢুকতে পারছিলেন না শেখ সুফিয়ান৷ যার ফলে মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী এজেন্ট হিসেবেও কাজ করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছিলেন তিনি৷

    এই সমস্যার কথা উল্লেখ করে এ দিন প্রথমে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেন শেখ সুফিয়ান৷ প্রধান বিচারপতি জানান, হোলির ছুটির পর মামলাটি শোনা হবে৷ কিন্তু যেহেতু নন্দীগ্রামে আগামী ১ এপ্রিল ভোট রয়েছে, তাই জরুরি ভিত্তিতে মামলাটি শুনানির জন্য ফের আবেদন করেন শেখ সুফিয়ানের আইনজীবী৷ এর পরই মামলাটি বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায় ও কৃষ্ণ মুরারির ডিভিশন বেঞ্চে পাঠানো হয়৷ সু্প্রিম কোর্টে শেখ সুফিয়ান দাবি করেন, তাঁর বক্তব্য না শুনেই রায় দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট৷

    নির্দেশ দিতে গিয়ে সু্প্রিম কোর্টের দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, 'মামলার বিচার প্রক্রিয়া চালিয়ে যেতে পারে কলকাতা হাইকোর্ট৷ কিন্তু যেহেতু শেখ সুফিয়ানের বক্তব্য না শুনেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তাই আপাতত দু' সপ্তাহ অথবা যতদিন না পর্যন্ত কলকাতা হাইকোর্টে মামলার শুনানি ফের শুরু হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত গত ৫ মার্চ দেওয়া কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশের উপরে স্থগিতাদেশ জারি করা হল৷'

    এ দিন সু্প্রিম কোর্টে শেখ সুফিয়ানের আইনজীবী অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই নির্বাচনের আগে ১৪ বছরের পুরনো মামলা ফের চালু করার জন্য আবেদন করা হয়েছে৷ শেখ সুফিয়ানের আইনজীবীকে সমর্থন করেন রাজ্য সরকারের আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙভি-ও৷ তিনি দাবি করেন, রাজনৈতিক বিক্ষোভের মতো ঘটনার ক্ষেত্রে চাইলে মামলা প্রত্যাহার করে নিতেই পারে রাজ্য সরকার৷ পাল্টা কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়েরকারী দীপক মিশ্রর হয়ে আইনজীবী মুকুল রোহতগি দাবি করেন, সুফিয়ানের বিরুদ্ধে অপহরণ এবং খুনের মতো অভিযোগ রয়েছে৷ ফলে তাঁর আবেদন খারিজ করা হোক৷ যদিও শেষ পর্যন্ত দু' পক্ষের সওয়াল জবাব শুনে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশিকার উপরে স্থগিতাদেশ জারি করেন দুই বিচারপতি৷

    Rajib Chakraborty

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: