corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমফানে সব শেষ! পূবালি হাওয়ায় কাকদ্বীপের মত্‍স্যজীবীদের আশা-ভরসা এখন ইলিশ

আমফানে সব শেষ! পূবালি হাওয়ায় কাকদ্বীপের মত্‍স্যজীবীদের আশা-ভরসা এখন ইলিশ

প্রথম দফার লকডাউন ঘোষণার সময় বেশিরভাগ মৎস্যজীবীই ছিলেন মাঝসমুদ্রে। মাছ ধরে যখন তাঁর ফিরলেন, তখন লকডাউন শুরু। ফলে মাছ ব্যবসায় জোর ধাক্কা।

  • Share this:
#কাকদ্বীপ: প্রথমে লকডাউনের ধাক্কা। তারপর আমফানে ট্রলারের ক্ষতি। ঘুম ছুটেছে মৎস্যজীবীদের। এই পরিস্থিতিতে আশা-ভরসা একমাত্র ইলিশ।
১৫ জুন থেকে ইলিশ ধরা শুরু। ভাল ইলিশ পেলে তবেই ঘুরে দাঁড়ানো যাবে। না হলে জীবন অন্ধকারে।    কাকদ্বীপের বাসিন্দা, পেশায় মত্‍স্যজীবী  শত্রুঘ্ন গিরির কথায়, 'পূবের হাওয়া বইছে। ইলিশ এবার ভাল ওঠার আশা। আশা করছি ভাল ইলিশ আসছে।'
প্রথম দফার লকডাউন ঘোষণার সময় বেশিরভাগ মৎস্যজীবীই ছিলেন মাঝসমুদ্রে। মাছ ধরে যখন তাঁর ফিরলেন, তখন লকডাউন শুরু। ফলে মাছ ব্যবসায় জোর ধাক্কা।
কাকদ্বীপের ট্রলার মালিক আদিত্য বিশ্বাসের কথায়, ট্রলার নিয়ে যেতে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা খরচ। মাছ নিয়ে এল পাঁচ লক্ষ টাকার। লকডাউনের কারণে বিক্রি হল দেড় থেকে ২ লক্ষ টাকার মাছ। মালিকদের লস। ট্রলার বন্ধ হয়ে যায়৷   প্রথমে লকডাউনে জেরবার। তার উপর আমফানে ক্ষতি। মৎস্যজীবীদের মাথায় হাত। কাকদ্বীপের আরেক মত্‍স্যজীবী রবীন দাস জানাচ্ছেন, ট্রলারে দড়ি ছিঁড়ে বহু টাকা ক্ষতি হয়ে গিয়েছে আমফানে৷ এই নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় পড়ে গিয়েছে সবাই৷
মৎস্যজীবীদের এখন আশা-ভরসা ইলিশ। ইলিশই পারে দিন বদলাতে। চোখের জল মুছিয়ে হাসি ফোটাতে। মৎস্যজীবীরা এখন তাকিয়ে ইলিশের দিকে৷
 
Published by: Arindam Gupta
First published: May 26, 2020, 3:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर