অভিনব উদ্যোগ, পুজোয় পোশাক জোগাড় করে দুঃস্থদের মধ্যে বিলিয়ে মুখে হাসি ফোটাচ্ছেন ভুগোলের শিক্ষক

অভিনব উদ্যোগ, পুজোয় পোশাক জোগাড় করে দুঃস্থদের মধ্যে বিলিয়ে মুখে হাসি ফোটাচ্ছেন ভুগোলের শিক্ষক

উদ্যোগটা শুরু হয়েছিল আগেই। নিজেই চেয়ে-চিন্তে পুরোন পোশাক জোগাড় করে দুঃস্থদের মধ্যে বিলিয়ে দিতেন শুভেন্দু।

  • Share this:

#হুগলি: নতুন-পুরোনর হিসেব ওরা বোঝে না। শুধু জানে, এবার পুজোয় তাদের জন্যও নতুন জামা। সৌজন্যে হুগলির বাঁশবেড়িয়ার শিক্ষক শুভেন্দু দত্ত। তাঁর উদ্যোগেই হাসি ফুটছে হুগলির বিভিন্ন গ্রামের দুঃস্থদের মুখে। এই প্রথম হয়ত পুজো এল ওদের মনে।

পুজোয় সবাই যখন নতুন জামা পড়ে আনন্দ করে। ওদের তখন নোংরা, ছেঁড়া জামা। ছলছলে চোখ।

পুজোর আগে হুগলির বাঁশবেড়িয়া, আলিখোজা, মগরায় দুঃস্থ ছেলেমেয়েদের মুখে হাসি ফোটাচ্ছেন ভূগোলের শিক্ষক শুভেন্দু দত্ত। উদ্যোগটা শুরু হয়েছিল আগেই। নিজেই চেয়ে-চিন্তে পুরোন পোশাক জোগাড় করে দুঃস্থদের মধ্যে বিলিয়ে দিতেন শুভেন্দু। মুখে মুখে খবর ছড়ায়। স্যারকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে ছাত্রছাত্রীরা।

বাঁশবেড়িয়ায় হংসেশ্বরী মন্দিরের পাশে চিত্তরঞ্জন বরের চায়ের দোকান সংলগ্ন ছোট্ট ঘরে শুরু হয় বড় উদ্যোগ। বাইরে ঝোলানো পোস্টার। ঘরে ঝোলানো বিভিন্ন রঙের, বিভিন্ন মাপের জামাকাপড়। এখন এখানেই প্রয়োজনের অতিরিক্ত পোশাক রেখে যান স্থানীয়রা। যাঁদের প্রয়োজন, তাঁরা তা নির্দিধায় নিয়ে যান।

অবসর পেলেই দূরের কোনও গ্রামে জামাকাপড় নিয়ে হাজির হয়ে যান প্রচার-বিমুখ শিক্ষক। হোক না সেকেন্ড হ্যান্ড। তবু আস্ত একটা জামা পেয়ে শিশুদের মুখ আলো করা হাসি-ই শুভেন্দু স্যারের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।

First published: 04:00:37 PM Sep 23, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर