'অন্য কেউ আমার মা নন, তৃণমূল এবার দ্বিতীয় হবে', বিজেপি মঞ্চে সাইক্লোন শুভেন্দু অধিকারীর

'অন্য কেউ আমার মা নন, তৃণমূল  এবার দ্বিতীয় হবে', বিজেপি মঞ্চে সাইক্লোন শুভেন্দু অধিকারীর

দুজনে মুখোমুখি|| শুভেন্দু অধিকারী, অমিত শাহ। ছবি-আবীর ঘোষাল

সম্ভবত জীবনের প্রথমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিয়ে রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে আক্রমণাত্মক মন্তব্য করতে দেখা গেল তাঁকে।

  • Share this:

    #মেদিনীপুর: তৃণমূলের সঙ্গে ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে বিজেপিতে  যোগ দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। মেদিনীপুরের মাটিকে প্ৰ‌ণাম জানিয়ে ঝড় তুললেন গেরুয়া মঞ্চ থেকে। সম্ভবত জীবনের প্রথমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম নিয়ে রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে আক্রমণাত্মক মন্তব্য করতে দেখা গেল তাঁকে।

    শুভেন্দু অধিকারী এদিন সরাসরি তৃণমূল নেত্রীর নাম নিয়ে বলেন, "এবার দ্বিতীয় হবেন, প্রথম হতে পারবেন না।" l তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ প্রসঙ্গে তাঁকে বিশ্বাসঘাতক বলছে তাঁর পুরনো দল। শুভেন্দুর উবাচ- "বলছে মায়ের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা! কে মা! আমার মা গায়ত্রী অধিকারী। আমার মা ভারতমাতা, স্বামী বিবেকানন্দের আরাধ্য দেবী।"

    যোগদানের সময় শুভেন্দু অধিকারী  এদিন অমিত শাহের সঙ্গে সম্পর্কে ভিয়েন নিয়েও বার্তা দেন। যেন বুঝিয়ে দিলেন, কিছুই রাতারাতি হয়নি। সম্পর্কেপ ভিত অনেক গভীর। তিনি বলেন,  "অমিত শাহ আমার বড় ভাই, আমার বড় ভাই। ৮ মাসে যা যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা পূরণ করেছেন। ২০১৪ সালে দলকে জিতিয়েছেন, তখন অশোক রোডের পুরনো পার্টি অফিসের সামনে অমিতজী আমার সঙ্গে দেখা করেছিলেন।"

    এদিন শুভেন্দুর গলায় ঝরে পড়ে একরাশ অভিমান। নিজের অসুস্থতার প্রসঙ্গ তুলে এনে বলেন, "২১ বছর অকৃতদার থেকে যে দলের জন্য করেছি, আমার সেই দল করোনার সময়ে আমার খোঁজ নেয়নি।" এর পরেই শুভেন্দুর মুখে এল চাণক্য-নাম। বললেন, "মুকুল রায় বলেছিলেন, সম্মান নিয়ে চলে আয়।"

    তৃণমূল বলছে পদের লোভে বিজেপিতে গিয়েছে শুভেন্দু। শুভেন্দুর দাবি তিনি, পদের লোভে নয়, কর্মী হিসেবে যোগ দিলেন  বিজেপিতে। তাঁর কথায়, "আশ্বস্ত করছি, বুথে বুথে পাড়ায় পাড়ায় পাবেন। শুভেন্দু মাতব্বরি করতে আসেনি। কর্মী হিসেবে কাজ করবে। পতাকা লাগাতে বললে লাগব। দেওয়াল লিখন বললে লিখব। আমাকে বিশ্বাসঘাতক বলা! অটলবিহারী বাজপেয়ীর আশীর্বাদ না পেলে যারা বেরোতে পারত না তাঁরা আমাকে বিশ্বাসঘাতক বলছে!" শুভেন্দুর মত, বাংলার অর্থনীতির দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বেই বাংলা একমাত্র ঘুরে দাঁড়াতে পারে।

    বহিরাগত প্রসঙ্গেও তোপ দাগেন শুভেন্দু। বলেন, "অমিত শাহকে বহিরাগত বলা! আমি বলেছি, আমরা আগে ভারতীয়, তারপরে বাঙালি।" তাঁর মুখে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কেও ঝাঁঝালে মন্তব্য শোনা গেল। তাঁর কথায়, "তোলাবাজ ভাইপো হঠাও বলব। কলকাতা আর দিল্লি একই সরকার থাকুক।"

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর