• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • STUDENTS OF A SCHOOL IN KESHPUR RECEIVED TWENTY THOUSAND RUPEES FROM GOVERNMENT FOR BUYING TAB DMG

১০ হাজার নয়, ট্যাব কিনতে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকল ২০ হাজার টাকা! অবাক পড়ুয়ারাও

দ্বিগুন টাকা পেয়ে অবাক পড়ুয়ারাও৷

  • Share this:

    #কেশপুর: দশ হাজার নয়, ট্যাব কিনতে ছাত্রছাত্রীদের অ্যাকাউন্টে ঢুকল ২০ হাজার টাকা৷ এমনই ঘটনা ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের ধলহারা পাগলীমাতা উচ্চ বিদ্যালয়ে। যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো অস্বস্তিতে স্কুল কর্তৃপক্ষ৷ স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাঁদের ব্যাঙ্কের পাস বই আটকে রাখার অভিযোগও তুলেছে পড়ুয়ারা৷ যদিও সফটওয়্যারের বিপত্তিতেই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে দ্বিগুন টাকা ঢুকেছে বলে দাবি স্কুল কর্তৃপক্ষের৷

    অনলাইন ক্লাসের জন্য উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের প্রায় ৯ লক্ষ পড়ুয়াকে ট্যাব বা স্মার্ট ফোন কিনতে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পড়ুয়াদের তালিকা তৈরির দায়িত্ব থাকছে সংশ্লিষ্ট স্কুলেরই৷ ছাত্রছাত্রীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি সেই টাকা পাঠাচ্ছে সরকার৷ কিন্তু গত ২১ জানুয়ারি ধলহারা পাগলীমাতা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোট ২৪জন ছাত্রছাত্রীর অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার করে দু' বার মোট কুড়ি হাজার টাকা জমা পড়ে৷

    এই বিভ্রাটের পরই টনক নড়ে স্কুল কর্তৃপক্ষের৷ ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ, অতিরিক্ত টাকা ফেরাতে তারা তৈরি, কিন্তু তার জন্য স্কুলের শিক্ষকরা তাদের নানা রকম হুমকি দিচ্ছেন এবং হয়রান করছেন৷ তাদের ব্যাঙ্করে পাস বইও আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ পড়ুয়াদের৷ অ্যাডমিট কার্ড আটকে রাখা, প্রজেক্টের নম্বর কম দেওয়ার হুমকিও শিক্ষকরা দিচ্ছে বলে অভিযোগ৷ ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের দাবি, স্কুল কর্তৃপক্ষের বদলে তাঁরা সরাসরি শিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের হাতে টাকা ফেরত দিতে চান৷ স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও তুলেছেন অভিভাবকরা৷

    প্রধান শিক্ষক শ্যামল কুমার ঘটকের অবশ্য দাবি, সফটওয়্যারের বিভ্রাটের জেরেই দু' বার পড়ুয়াদের তালিকা শিক্ষা দফতরে জমা পড়েছে৷ সেই কারণেই দু' বার করে টাকা পেয়েছে ছাত্রছাত্রীরা৷ স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেই ওঠা অভিযোগও অস্বীকার করেছেন তিনি৷ টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া মানতেই ছাত্রছাত্রীদের ব্যাঙ্কের পাসবই নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রধান শিক্ষক৷

    Sovan Das
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: