বীরভূমে স্কুলছুট ১০৫ পড়ুয়া, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রেই চলছে পড়াশোনা

বিভিন্ন সরকারি সুযোগসুবিধা থেকেও এখন বঞ্চিত পড়ুয়ারা।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 30, 2019 05:28 PM IST
বীরভূমে স্কুলছুট ১০৫ পড়ুয়া, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রেই চলছে পড়াশোনা
Photo - Video Grab
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 30, 2019 05:28 PM IST

#পুরুলিয়া:গ্রাম আর স্কুলের মাঝে ব্যস্ত রাস্তা. স্কুলে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনা লেগেই থাকে. ছেলেমেয়েদের পাঠান না অভিভাবকরা. বীরভূমের পাড়ুইয়ে ড্রপআউট রুখতে এগিয়ে এসেছিল পুলিশ. থানার উদ্যোগে অঙ্গনওয়ারি কেন্দ্রেই এখন পড়েন ১০৫ জন পড়ুয়া. আর জমি জটে এখনও আটকে স্কুল তৈরির কাজ৷

এটা কোনও স্কুল নয়, বাঁধেরপাড়া অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র। এখানেই ক্লাস করেন পাড়ুইয়ের বাঁধেরপাড়া ও বড়াল গ্রামের ১০৫ জন পড়ুয়া। আর শিক্ষকের বদলে এখানে ক্লাস নেন সিভিক ভলানটিয়াররা।

বাঁধেরপাড়া ও বড়াল থেকে সাড়ে চার কিলোমিটার দূরে বেড়গ্রাম প্রাথমিক বিদ‍্যালয়

২০১৫ সালে স্কুল যাওয়ার পথে দুঘর্টনায় মৃত‍্যু হয় ২ পড়ুয়ার

পড়ুয়াদের স্কুলে পাঠাতে আর রাজি হননি ২ গ্রামের বাসিন্দারা

Loading...

বাঁধেরপাড়ায় স্কুল তৈরিতে উদ‍্যোগী হন বোলপুরের তৎকালীন এসডিও এবং এসডিপিও খুঁজে বের করেন দশ কাঠা সরকারি খাস জমিও

ভূমি রাজস্ব দফতর ও শিক্ষা দফতরের মধ‍্যে জমি হস্তান্তর না হওয়ার কারণেই তিন বছরেও তৈরি হয়নি স্কুল। জমি হস্তান্তর হলে স্কুলের অনুমোদন দিতে অসুবিধা নেই, বলছেন জেলা স্কুল পরিদর্শক।

খাতায় কলমে ড্রপআউট রোখা যায়নি. এগিয়ে এসেছে থানা. পাড়ুই থানার ওসি দেবব্রত সিনহার উদ‍্যোগে থানার খরচেই চলছে এই স্কুল। নিজেদের ডিউটির আগে বা পরে এসে স্কুল চালাচ্ছেন সিভিক ভলানটিয়াররা। শিক্ষক যেমন পাওয়া যায়নি, বিভিন্ন সরকারি সুযোগসুবিধা থেকেও এখন বঞ্চিত পড়ুয়ারা।

আরও দেখুন

First published: 05:28:14 PM Aug 30, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर