বিয়ে করতে অস্বীকার করায় হাইস্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রীর গলায় ফাঁস!

বিয়ে করতে অস্বীকার করায় হাইস্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রীর গলায় ফাঁস!

সবার অলক্ষ্যে বাড়ির পাশে একটি আমগাছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।পুলিশ বাড়ি থেকে একটি সুসাইড নোট উদ্ধার করেছে।

  • Share this:

#হেমতাবাদ: বিয়ে করতে অস্বীকার করায় হাইস্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রীর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতি। ঘটনাটি হেমতাবাদ থানার বলাইগাঁও গ্রামে। মৃত ছাত্রীর নাম যোশেদা খাতুন। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। মৃত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত প্রেমিক নাজিমুলের বিরুদ্ধে হেমতাবাদ থানায় লিখিত দায়ের কারেছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে,মৃত ছাত্রীর বাবা শরিকুল হক স্ত্রীকে নিয়ে দিল্লিতে শ্রমিকের কাজ করেন। মামার বাড়িতে থেকে পড়াশুনা করতেন যোশেদা খাতুন। গ্রামেরই যুবক নাজিমূল সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। তাদের মধ্যে সেই সম্পর্কের অবনতি হয়। নাজিমূল বিয়ে করতে অস্বীকার করে। গতকাল বাবা শরিকুলের সঙ্গে বেশ কিছু ফোনালাপ হয়। তারপরই প্রেমিক নাজিমুলের সঙ্গে ফোনে কথা বলে যোশেদা।

সবার অলক্ষ্যে বাড়ির পাশে একটি আমগাছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।পুলিশ বাড়ি থেকে একটি সুসাইড নোট উদ্ধার করেছে।পুলিশী তদন্ত শুরু হয়েছে।অভিযুক্ত প্রেমিকের কঠোর শাস্তির দাবি করেছে পরিবার।অভিযুক্ত নাজিমুল পলাতক ৷

First published: February 27, 2020, 3:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर