উপাচার্যে রাস্তায় বসিয়ে পড়ুয়াদের বিক্ষোভ বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে

উপাচার্যে রাস্তায় বসিয়ে পড়ুয়াদের বিক্ষোভ বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে
  • Share this:

#বর্ধমান: ফের বিক্ষোভের মুখে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। ত্রুটিমুক্ত ফলপ্রকাশ-সহ একাধিক দাবিতে ঘেরাও নিমাইচন্দ্র সাহা। গোলাপবাগ ক্যাম্পাসে, রাস্তায় বসিয়ে রেখে বিক্ষোভ। চলে পড়ুয়াদের স্লোগান ।

গত সপ্তাহেই নিজের অফিসে রাত পর্যন্ত ঘেরাও ছিলেন উপাচার্য। সেসময় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার জেরে তাঁকে কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। উপাচার্যের অসুস্থতার জেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট মিটিং স্থগিত হয়ে যায়। আচার্য তথা রাজ্যপালের উপস্থিতিতে সেই মিটিং হওয়ার কথা ছিল। সেই মিটিংয়ের ঠিক আগে উপাচার্যের অসুস্থতাকে ঘিরে রাজ্য জুড়ে আলোড়ন পড়ে। শুরু হয় রাজনৈতিক চাপান উতোর।  বিশ্ববিদ্যালয়ের মিটিংয়ে রাজ্যপালের উপস্থিতি আটকাতেই উপাচার্য অসুস্থতার নাটক করেছিলেন বলে অভিযোগ তুলেছিল এবিভিপি। অবশেষে রাজ্যপাল তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য সেই মিটিং স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় তখনকার মতো বিতর্ক থামে। উপাচার্য ফের কাজে যোগ দিতেই শুরু হল বিক্ষোভ।

মঙ্গলবার বিকেলে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলাপবাগ  ক্যাম্পাসে মিটিং  করতে যান উপাচার্য।  মিটিং শেষে গাড়িতে ওঠার সময় এমবিএ ডিপার্টমেন্টের সামনে উপাচার্যকে ঘেরাও করে পড়ুয়াদের একাংশ। সময়ে ত্রুটিমুক্ত ফল প্রকাশের দাবি, পরীক্ষার দিন ঘোষণা হয়ে গেলেও  ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ার প্রতিবাদ সহ বেশ কয়েকদফা দাবিতে উপাচার্যকে ঘেরাও করা হয়। সেবার সমস্যা সমাধানে 24 ঘন্টা সময় চেয়েছিলেন উপাচার্য । কিন্তু সপ্তাহ কেটে গেলেও কোনও সুরাহা মেলেনি বলে অভিযোগ পড়ুয়াদের।

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলাফলে বিলম্ব হওয়ার ঘটনা গত বেশ কয়েক বছর ধরেই চলে আসছে। ফলাফলে প্রচুর ভুল থাকছে, গড় নম্বর আসছে বলেও অভিযোগ পড়ুয়াদের। এই সমস্যা মিটিয়ে সময়ে ফল প্রকাশের দাবি দীর্ঘদিনের।

এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসগুলিতে পরিকাঠামোগত বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। নিয়মিত পানীয় জলের অপচয় হচ্ছে। বার বার কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনও সুফল না মেলায় তাঁরা উপাচার্যকে ঘেরাও করতে বাধ্য হন বলে জানিয়েছেন বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা। তবে এ ব্যাপারে উপাচার্য বা  বিশ্ববিদ্যালয়ের আধিকারিকদের কেউই সংবাদ মাধ্যমের  সামনে কোনও প্রতিক্রিয়া জানাতে চাননি।

First published: 08:45:00 PM Nov 26, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर