• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • শিক্ষিকার নির্মম শাসনে অসুস্থ ছাত্র

শিক্ষিকার নির্মম শাসনে অসুস্থ ছাত্র

দমদম কলকাতার পর এবার জয়নগর ৷ শিক্ষিকার নৃশংস মারে অসুস্থ হয়ে পড়ল একজন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ৷ অন্যদিকে, অভিযুক্ত শিক্ষিকা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ৷

দমদম কলকাতার পর এবার জয়নগর ৷ শিক্ষিকার নৃশংস মারে অসুস্থ হয়ে পড়ল একজন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ৷ অন্যদিকে, অভিযুক্ত শিক্ষিকা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ৷

দমদম কলকাতার পর এবার জয়নগর ৷ শিক্ষিকার নৃশংস মারে অসুস্থ হয়ে পড়ল একজন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ৷ অন্যদিকে, অভিযুক্ত শিক্ষিকা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #দক্ষিণ ২৪ পরগণা : দমদম কলকাতার পর এবার জয়নগর ৷ শিক্ষিকার নৃশংস মারে অসুস্থ হয়ে পড়ল একজন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ৷ অন্যদিকে, অভিযুক্ত শিক্ষিকা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ৷

    স্কুলের দিদিমনির হাতে নির্মম শাসনে অসুস্থ হয়ে পড়ে বারুইপুর হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র রনিত হালদার ৷ অভিযোগ, সোমবার স্কুলে গেলে প্রথম পিরিয়ডে প্যারা টিচার শর্মিষ্ঠা মন্ডল ক্লাস নিতে এসে রনিতকে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে হাতে ও পায়ে ব্যাপক মারধর করার পাশাপাশি টানা চার ঘন্টা ক্লাস রুমের বাইরে রোদের মধ্যে দাঁড় করিয়ে রাখেন ৷ এর পরই স্কুল শেষে ট্রেনে জয়নগর থানার গোয়ালবেড়িয়ার বাড়িতে ফেরার পথে অসুস্থ হয়ে পড়ে রণিত ৷ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে স্কুলে মারধরের ঘটনা জানতে পারেন রণিতের মা রেখা হালদার ৷

    আজ মঙ্গলবার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় রনিতের শরীরে মারের আঘাতে কালশিটে পড়ে গিয়েছে ৷ ছোট্ট ছাত্রটির চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ ৷ রনিতের বাবা ও মা জানান, চলতি মাসের 19 তারিখ স্কুলে ভূগোল পরীক্ষার সময় নকল করার চেষ্টায় এক শিক্ষক রণিতকে ধরে ফেলে এবং কড়া ভাবে শাসন করে ছেড়ে দেন ৷ এরপর স্নায়ু সমস্যার কারণে রণিত কদিন স্কুলে যেতে পারেনি ৷ কিন্তু সোমবার স্কুলে গেলে কয়েকজন সহপাঠী শিক্ষিকা শর্মিষ্ঠা মন্ডলকে নকল করার কথা জানাতেই তিনি উত্তেজিত হয়ে পড়েন এবং নিজের হাতেই কড়া ভাবে শাসন করতে গিয়ে ছাত্রটিকে প্রচন্ড মারধর করেন ৷ তাতেও শেষ হয়নি শাস্তি ৷ এরপর ঘণ্টার পর ঘন্টা বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয় রণিতকে ৷

    এতেই অসুস্থ হয়ে পড়ে ছাত্রটি ৷ ছাত্রের বাবা-মা স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন ৷

    First published: