corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্য-রাজ্যপালের সংঘাতের মাঝেই বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্যের পদে বসলেন আশিস কুমার পানিগ্রাহী

রাজ্য-রাজ্যপালের সংঘাতের মাঝেই বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্যের পদে বসলেন আশিস কুমার পানিগ্রাহী

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্যের দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের জুলজি বিভাগের অধ্যাপক আশিস কুমার পানিগ্রাহী

  • Share this:

#বর্ধমান: রাজ্য রাজ্যপাল বেনজির সংঘাতের মাঝেই বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্যের দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের জুলজি বিভাগের অধ্যাপক আশিস কুমার পানিগ্রাহী। মঙ্গলবার সকাল সকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজবাড়ি ক্যাম্পাসে পৌঁছে উপাচার্যের কাছে সহ উপাচার্যের দায়িত্বভার বুঝে নেন তিনি।

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের-সহ উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে রাজ্য ও রাজ্যপালের মধ্যে সংঘাত শুরু হয় সোমবার বিকেলে। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের-সহ উপাচার্য পদে বিশ্ববিদ্যালয়ের জুলজির অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগ করেন রাজ্যপাল। নিয়োগের সেই ফাইল পাঠানো হয় উচ্চশিক্ষা দফতরে। সংঘাতের শুরু সেখানেই। শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা না করে রাজ্যপালের একতরফা নিয়োগের এক্তিয়ার নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এরপরই উচ্চ শিক্ষা দফতর ওই নিয়োগ বাতিল করে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় জুলজি বিভাগের অধ্যাপক আশিস কুমার পানিগ্রাহীকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য পদে নিয়োগের নির্দেশিকা জারি করে। একুশে ফেব্রুয়ারি থেকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে সহ উপাচার্যের পদ শূন্য ছিল।

মঙ্গলবার বেলা ১০টা নাগাদ বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ক্যাম্পাস রাজবাড়িতে পৌঁছে যান আশিস কুমার পানিগ্রাহী। উপাচার্য নিমাই চন্দ্র সাহার কাছে দায়িত্ব বুঝে নেন তিনি। এরপর তিনি জানান, সোমবার সকালে রাজ্য উচ্চ শিক্ষা দফতরের নিয়োগপত্র হাতে পাই। সেইমতো আজই সহ উপাচার্যের পদে যোগ দিতে এসেছিলাম। এই দায়িত্ব পেয়ে ভালোই লাগছে। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আবহে পড়াশোনার পদ্ধতিতে অনেক বদল আসবে। সেসবের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সময়ে সিলেবাস শেষ করে পরীক্ষা ও সময়ে ফলপ্রকাশের ব্যাপারে বাড়তি নজর থাকবে। নিয়োগ নিয়ে নজিরবিহীন সংঘাত প্রসঙ্গে বলেন, উচ্চ শিক্ষা দফতরের নিয়োগপত্র পেয়ে আমি কাজে যোগ দিয়েছি। এর বাইরে আর কিছু আমার বলার নেই। সহ উপাচার্য নিয়োগে রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাত প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে চাননি উপাচার্য নিমাইচন্দ্র সাহাও।

Saradindu Ghosh

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 2, 2020, 6:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर