corona virus btn
corona virus btn
Loading

গঙ্গাসাগর মেলায় যাবেন ? দেখে নিন বাস-ভেসেল কবে কোথায় পাবেন, পকেটে রাখুন এই নম্বর

গঙ্গাসাগর মেলায় যাবেন ? দেখে নিন বাস-ভেসেল কবে কোথায় পাবেন, পকেটে রাখুন এই নম্বর
Representational Image

১৫ জানুয়ারি মকর সংক্রান্তি দিন দুপুর ১:৪৩ মিনিট থেকে বিকেল ৩:০৭ মিনিট অবধি পুণ্যকলা। সন্ধ্যা ৮:৫৭ থেকে রাত ১০:৩২ পর্যন্ত মহা পুণ্যকলা। ফলে ১৪, ১৫ ও ১৬ জানুয়ারি সবচেয়ে বেশি মানুষ পুণ্য স্নানের জন্য মেলায় আসবেন।

  • Share this:

Abir Ghoshal

#কলকাতা: দু’বছর কেটে গেলেও মাঝেরহাটে নয়া সেতু তৈরির কাজ শেষ হল না। ফলে এবারও গঙ্গাসাগর মেলায় যেতে হলে সময় লাগবে একটু বেশি। তবে ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই মেলায় পুণ্য স্নানের জন্য আসা মানুষের যাতে পৌছতে অসুবিধা না হয় তার জন্য বিশেষ বন্দোবস্ত করল রাজ্য পরিবহণ দফতর। বাড়ানো হল ভেসেল ও লঞ্চের সংখ্যা। আগামী ৮ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত এই বিশেষ ব্যবস্থা চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী।

১৫ জানুয়ারি মকর সংক্রান্তির দিন দুপুর ১:৪৩ মিনিট থেকে বিকেল ৩:০৭ মিনিট অবধি পুণ্যকলা। সন্ধ্যা ৮:৫৭ থেকে রাত ১০:৩২ পর্যন্ত মহা পুণ্যকলা। ফলে ১৪, ১৫ ও ১৬ জানুয়ারি সবচেয়ে বেশি মানুষ পুণ্য স্নানের জন্য মেলায় আসবেন।

এবারের মেলায় রাজ্য পরিবহণ নিগম, ইনল্যানড ওয়াটারওয়েজ অথরিটি অফ ইন্ডিয়া, পূর্ত দফতর, হুগলি নদী জলপথ পরিবহণ সমবায় সমিতি একযোগে ভেসেল পরিষেবা দেবে। এছাড়া বেঙ্গল লঞ্চ ওনারস অ্যাসোসিয়েশন ১০০টা লঞ্চ চালাবে। ইনল্যানড ওয়াটার ওয়েজ অ্যাসোসিয়েশন ৩টে গাড়ি পারাপারের জন্য ভেসেল রাখছে। ইতিমধ্যেই লট ৮ ও কচুবেড়িয়ায় ৮টি পন্টুন পরীক্ষার কাজ সেরে ফেলেছে রাজ্য পরিবহণ দফতর। রাজ্য পরিবহণ নিগম ১৮ টি ভেসেল চালাবে।

হুগলি নদী জলপথ পরিবহন সমবায় সমিতি ১৪টি ভেসেল চালাবে। সব মিলিয়ে ১৩২টি ভেসেল চলবে। এলসিটি (গাড়ি পারাপারের জন্য) চলবে ৬টি। নামখানা ও বেনুবণ বা চিমাগুরি দিয়েও যেহেতু মানুষ নদী পারাপার করেন তাই সেখানেও বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। প্রতিটি এলাকার ছবি সরাসরি কন্ট্রোল রুম থেকে বসে দেখতে পারবেন পরিবহণ ও পুলিশের আধিকারিকরা। এছাড়া যাত্রী নিরাপত্তার জন্য থাকছে একাধিক লাইফ জ্যাকেট ও নানা ব্যবস্থা।

বাসের সংখ্যাও বৃদ্ধি করতে চলেছে রাজ্য পরিবহণ দফতর। ২২০০ বাস চালাবে রাজ্য সরকার। তার মধ্যে রাজ্য পরিবহণ নিগম চালাবে ১৩০০ বাস ও দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম চালাবে ৯০০ বাস। সর্বমোট ২২০০ বাস চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ১১ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি অবধি চলবে এই সমস্ত বাস। ১১ জানুয়ারি চলবে ৬৯টি বাস। ১২ জানুয়ারি চলবে ৯২ টি বাস। ১৩ জানুয়ারি চলবে ২৭৯টি বাস। ১৪ জানুয়ারি চলবে ৫০২ টি বাস। ১৫ জানুয়ারি চলবে ৫৩১টি বাস। ১৬ জানুয়ারি চলবে ৫০০ বাস ও ১৭ জানুয়ারি চালানো হবে ২২৭ টি বাস। রাজ্য পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, গত বারের তুলনায় ৫৯০টি বাস বেশি চালাচ্ছে তারা। রাজ্য পরিবহণ নিগম নামখানা অবধি যাওয়ার জন্য আগামী ৫ জানুয়ারি থেকে বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করছে। ১৫ ও ১৬ তারিখের জন্য অতিরিক্ত ১০০ টি বাস রাখা হচ্ছে। এছাড়া সুন্দরবন পুলিশ জেলাকে ৭ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারি ও ১৭-১৮ জানুয়ারির জন্য ১১০ খানা বাস দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া এই প্রথম সরকারি বাসের যাতায়াতের জন্য বিশেষ চ্যানেল করা হচ্ছে। বাস ও ভেসেলর সংখ্যা মেলার জন্য বাড়লেও ভাড়া বাড়ানো হচ্ছে না বলেই জানাচ্ছে রাজ্য পরিবহণ দফতর।

তবে শুধু সড়কপথ বা জলপথে জোর দেওয়া নয় রাজ্য সরকার এবার আকাশপথেও জোর দিচ্ছে। এয়ার অ্যামবুলেনস থাকছে এই প্রথম বার মেলায়। এছাড়া ১০ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারির জন্য সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত পাওয়া যাবে হেলিকপটার পরিষেবা।

এছাড়া যাবতীয় বিষয়ে যোগাযোগের জন্য সাধারণ মানুষের জন্য থাকছে ৯৮৩০১৭৭০০০ হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার। এছাড়া ধর্মতলা ডিপো (৮৬৯৭৭৩৩৩৯১/৮৬৯৭৭৩৩৩৯২), বাবুঘাট (৯৪৩২০২২১৪১), হাওড়া(৮৬৯৭৭৩৩৪৬০), লট ৮ (৮৬৯৭৭৩৩৪২৩), কচুবেড়িয়া (৮৯০০২৭৪৯৭৯) ও লট ৮ ভেসেলের জন্য (৯০৫১৪১১৩১৬/৯৮৩০০৮৩০৬৫) নম্বরে যোগাযোগ করতে পারবেন যাত্রীরা ।

মেলার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি সারা। এখন মেলার দিন গুলিতে লাখ লাখ মানুষকে পরিষেবা দেওয়াই মূল লক্ষ্য সরকারের।

First published: December 29, 2019, 12:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर