কথা দিয়েছিলেন খুব তাড়াতাড়ি ফিরবেন, ফিরলেন শববাহী গাড়িতে

কথা দিয়েছিলেন খুব তাড়াতাড়ি ফিরবেন, ফিরলেন শববাহী গাড়িতে
  • Share this:

#সাগরদিঘি: মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে স্বজন হারানোর কান্না। কাশ্মীরে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত পাঁচ শ্রমিকের দেহ গ্রামে এসে পৌঁছয় বৃহস্পতিবার। এদিনই নিহতদের পরিবারের হাতে ক্ষতিপূরণ তুলে দেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। চোখের জলে শেষ শ্রদ্ধা জানান গ্রামবাসীরা। দুপুরে শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় পাঁচ শ্রমিকের।

রাতভর চোখে ঘুম নেই বাহালনগরের। রাস্তায় ঠায় দাঁড়িয়ে কয়েকশো গ্রামবাসী। দুচোখে অপেক্ষা...

ভোর তখন পাঁচটা পঁচিশ। দমদম বিমানবন্দর থেকে ৫ শ্রমিকের দেহ নিয়ে বহালনগর পৌঁছয় কনভয়। সঙ্গে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। পাঁচজনের সংসার হঠাৎ বাকরুদ্ধ। জঙ্গিদের গুলিতে সব শেষ। মঙ্গলবার জম্মু-কাশ্মীরের কুলগ্রামের কাতরাসুতে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত মুরসালিম শেখ, রফিক শেখ, কামিরুদ্দিন শেখ, নইমুদ্দিন শেখ, রফিকুল শেখ। প্রত্যেকেই মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘির বাসিন্দা।

কথা দিয়েছিলেন খুব তাড়াতাড়ি ফিরবেন..কিন্তু কথা রাখা হল না। বৃহস্পতিবার শববাহী গাড়ি বয়ে নিয়ে এল তাঁদের কফিনবন্দী দেহ। গ্রামের মাঠে তৈরি হয়েছিল মঞ্চ...

দেহ যখন পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হল...উঠোনে তিলধারণের জায়গা নেই ৷ নিহত শ্রমিকদের বাড়িতে যান মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, সাংসদ মহুয়া মৈত্র...৷ নিহত ও আহত শ্রমিকের পরিবারের হাতে রাজ্য সরকারের তরফে পাঁচ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ তুলে দেওয়া হয়।

স্বজন হারানোর শোকে পাথর গোটা গ্রাম। কারও বাড়িতেই হাড়ি চড়েনি। তাই গ্রামেরই এক বাসিন্দার বাড়িতে সকলে মিলে তৈরি করেছেন কমিউনিটি কিচেন। কয়েকটা দিন এখানেই খাওয়াদাওয়া করবেন গ্রামের সবাই...এসময় যতটা পারা যায় সাথে সাথে থাকা...৷

First published: 11:20:49 AM Nov 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर