সভার আগেই আগুনে পুড়লো বিজেপির মঞ্চ, উত্তেজনা মেমারির দেবীপুরে

সভার আগেই আগুনে পুড়লো বিজেপির মঞ্চ, উত্তেজনা মেমারির দেবীপুরে
ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে মেমারি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। চাপা উত্তেজনা থাকায় এলাকায় পুলিশি টহল চলছে।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে মেমারি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। চাপা উত্তেজনা থাকায় এলাকায় পুলিশি টহল চলছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: সভার আগেই আগুনে পুড়লো বিজেপির মঞ্চ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারির দেবীপুরে। কর্মসূচি বানচাল করতে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিরোধীরা তাঁদের সভামঞ্চে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস ঘটনার জন্য বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলকেই দায়ী করেছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে মেমারি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। চাপা উত্তেজনা থাকায় এলাকায় পুলিশি টহল চলছে।


পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারি এক নম্বর ব্লকের দেবীপুর অঞ্চলের মুবারাকপুর ডিভিসি পাড়ে আজ মঙ্গলবার বিজেপির যুব মোর্চার পথসভা হওয়ার কথা ছিল। বিজেপি কর্মীরা সেই কর্মসূচি উপলক্ষে একটি মঞ্চ তৈরি করেছিল। গতকাল রাত সাড়ে দশটা নাগাদ মঞ্চ বাঁধা শেষ করে কর্মীরা বাড়িতে চলে যান। আজ সকালে বিজেপি কর্মীরা দেখতে পান, পোড়া অবস্থায় রয়েছে ওই সভামঞ্চ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। তাঁদের কর্মসূচি বানচাল করতেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে বলে অভিযোগ তুলে সরব হন বিজেপি কর্মীরা।

সভামঞ্চে পুড়িয়ে দেওয়ার কথা চাউর হতেই প্রতিবাদে নেমে পড়েন বিজেপির নেতা কর্মীরা | ঘটনাস্থলে যান বিজেপি নেতা ভীষ্মদেব ভট্টাচার্য। তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, ঘটনাটি যারাই ঘটিয়ে থাকুক তা অত্যন্ত নক্কারজনক এবং নিন্দনীয়। জড়িতদের চিহ্নিত করে উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানান তিনি।

মেমারি এক নম্বর ব্লকের তৃণমূল যুব সভাপতি জিতেন্দ্র সিং বলেন, বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে সভা মঞ্চ পোড়ানোর মতো ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এর সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস কোনও ভাবেই জড়িত নয়। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের উপযুক্ত শাস্তির দাবিও করেন তিনিও। বিজেপির দাবি, এলাকায় তাঁদের সংগঠন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এলাকার বাসিন্দাদের সমর্থন তাঁদের পক্ষে। তাই রাজনৈতিকভাবে বিজেপির সঙ্গে পেরে উঠতে না পেরে রাতের অন্ধকারে মঞ্চ পুড়িয়ে এলাকায় অশান্তির পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে বিরোধীরা।

Published by:Simli Raha
First published: