বিভিন্ন ষ্টেশনে আদিবাসীদের রেল অবরোধ, সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

বিভিন্ন ষ্টেশনে আদিবাসীদের রেল অবরোধ, সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

বিভিন্ন ষ্টেশনে আদিবাসীদের রেল অবরোধ, সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

বিভিন্ন ষ্টেশনে আদিবাসীদের রেল অবরোধ, সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

  • Share this:

    #বাঁকুড়া: আদিবাসীদের জমি নিয়ে প্রস্তাবিত নয়া আইনের প্রতিবাদে রেল রোকো ও রাস্তা অবরোধের ডাক। পশ্চিম মেদিনীপুর, বেলদা, খড়গপুরের খেমাশুলি, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, আসানসোলে রেল অবরোধ। বিভিন্ন স্টেশনে আটকে লোকাল ও দূরপাল্লার বেশ কয়েকটি ট্রেন। দক্ষিণ-পূর্ব শাখায় বিপর্যস্ত রেল চলাচল। অবরুদ্ধ জাতীয় ও রাজ্য সড়ক। চরম বিপাকে যাত্রীরা। জঙ্গলমহল ছাড়াও উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলাতেও ভোগান্তি।

    আদিবাসীদের ডাকা রেল ও সড়ক অবরোধের জেরে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের খড়গপুর আদ্রা রেলপথে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ল ট্রেন যোগাযোগ ।

    ঝাড়খণ্ডে জমি আইন নিয়ে বিতর্ক। বিপন্ন সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য।

    কী কারণে অবরোধ ? -- --ঝাড়খণ্ডে আদিবাসীদের জমি আইন নিয়ে বিতর্ক ---সিএনটি ও এসপিটি দুটি আইনে সংশোধনী চায় সরকার ---এই আইনে আদিবাসীদের জমির অধিকার ছিল শুধু আদিবাসীদেরই -- সংশোধনীতে সেই অধিকার কমাতে চায় সরকার ---বাইরের যে কেউ আদিবাসীদের জমি কিনতে পারবে -- আদিবাসীদের জমি শিল্পের কাজে লাগানো যাবে ---নয়া আইনের বিরোধিতায় ঝাড়খণ্ডে লাগাতার বিক্ষোভ

    ঝাড়খণ্ডের আদিবাসীদের সঙ্গে নিজস্ব দাবিদাওয়া নিয়ে যোগ দেয় বাংলার আদিবাসী সংগঠন। জঙ্গলমহলের চারটি জেলায় রেল ও রাস্তা অবরোধ।   ব্যাহত দক্ষিণ-পূর্ব শাখার রেল চলাচল। রাজ্য ও রেলের কাছে আগাম খবর থাকলেও এড়ানো যায়নি যাত্রী হয়রানি।

    বাঁকুড়া জেলায় তেমন ভাবে অবরোধ না হলেও অন্যত্র অবরোধের জেরে ইতিমধ্যেই একাধিক ট্রেন বাতিল করা হয়েছে । জেলার বিভিন্ন জায়গায় আটকে রয়েছে একাধিক এক্সপ্রেস ও লোকাল ট্রেন ।

    বাঁকুড়া- সকাল সাড়ে দশটা থেকে বাঁকুড়ার বিভিন্ন রাজ্য ও জাতীয় সড়কে শুরু হয় অবরোধ। বাঁকুড়ার কাঠজুড়ি ডাঙা, ধলডাঙা, পুয়াবাগান, ওন্দা সহ বেশ কয়েকটি রাস্তা অবরোধ করে রাখে ভারত জাকাত মাঝি পরগনা মাড়োয়া সংগঠনের আদিবাসী সদস্যরা। বাঁকুড়া, ওন্দা , রামসাগর , ছাদনা , ঝাঁটিহাড়ি, বিষ্ণুপুর স্টেশনে অবরোধের জেরে আটকে পড়ে বিভিন্ন ট্রেন। পশ্চিম মেদিনীপুর - সকাল ছটা থেকে খড়গপুর- আদ্রা, ওড়িশা, হাওড়া ও ঝাড়খণ্ড রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ। শালবনি , খ্যামাশুলি, বেলদার নেকুর সেনি, বালিচক স্টেশনে চলে অবরোধ। শালবনি ঢোকার আগে জঙ্গলে আটকে দেওয়া হয় খড়গপুর-আসানসোলগামী ট্রেন। পরে ট্রেনটিকে মেদিনীপুর ফিরিয়ে আনা হয়। অন্যদিকে , অবরোধে পড়ার আগেই চন্দ্রকোণা রোড স্টেশনে আদ্রা - হাওড়া শিরোমণি ফাস্ট প্যাসেঞ্জার আটকে দেয় রেল। দীর্ঘক্ষণ আটকে থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা। বালিচক স্টেশনে অসুস্থ হয়ে পড়েন দুই যাত্রী। খড়গপুরে আটকে পড়ে হাওড়া-মুম্বই দুরন্ত এক্সপ্রেস। শালবনিতে ষাট নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে আদিবাসীরা। অবরোধ করা হয় খেমাশুলিতে ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক । পুরুলিয়া- নিতুড়িয়া মোড় থানার হরিডি মোড় রাজ্য সড়ক আর মধুকুণ্ডা রেল স্টেশনে সকাল থেকে চলে অবরোধ। পুরুিয়ার আদ্রা স্টেশনে আটকে পড়ে দিল্লি ভুবনেশ্বর দুরন্ত এক্সপ্রেস, গোমো খড়গপুর প্যাসেঞ্জার। সমস্যায় যাত্রীরা। ঝাড়গ্রাম ঝাড়গ্রামেও রেল অবরোধ। আটকে পড়ে টাটা-খড়গপুর প্যাসেঞ্জার, পুরি-হাওড়া মুম্বই এক্সপ্রেস।

    রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বিষ্ণুপুরে আটকে রয়েছে হাওড়া পুরুলিয়া এক্সপ্রেস , বাঁকুড়ায় নিউ দিল্লী পুরী নিলাচল এক্সপ্রেস , ঝাটিপাহাড়ি স্টেশনে আসানসোল হলদিয়া এক্সপ্রেস সহ একাধিক ট্রেন দাঁড়িয়ে রয়েছে । ইতিমধ্যে বাতিল করা হয়েছে খড়গপুর আসানসোল লোকাল ও আদ্রা মেদিনীপুর ডিএমইউ প্যাসেঞ্জার সহ বেশ কয়েকটি ট্রেন । একের পর এক ট্রেন বাতিল ঘোষণা হওয়ায় ও আটকে পড়ায় জেলার বিভিন্ন স্টেশনে চূড়ান্ত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন সাধারন যাত্রী ।

    আজ সকাল দশটা থেকে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে ওন্দা, বাঁকাদহ সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে অবরোধ শুরু হয়। অবরোধের জেরে বাঁকুড়া জেলা জুড়ে সড়ক পরিবহন সম্পুর্ন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। ইমার্জেন্সি সার্ভিস ও স্কুল গাড়ি ছাড়া কোনও গাড়িকে অবরোধ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে না।
    First published: