বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে নাবালিকাকে জোর করে দেহ ব্যবসায় নামানোর অভিযোগ

নাবালিকা মেয়েকে জোর দেহ ব্যবসায় নামানোর চেষ্টার অভিযোগ উঠল বাবা ও মায়ের বিরুদ্ধে।

  • Last Updated :
  • Share this:

    #রায়গঞ্জ: নাবালিকা মেয়েকে জোর দেহ ব্যবসায় নামানোর চেষ্টার অভিযোগ উঠল বাবা ও মায়ের বিরুদ্ধে। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নাবালিকার বাবা ও এলাকার এক দুস্কৃতীকে গাছের সাথে বেঁধে বেধড়ক মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয় গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার মহারাজপুর এলাকায়।

    অভিযোগ, পেশায় গাড়ির চালক মেয়েটির বাবার মিঠু গুহ ৷ মিঠু ও তার স্ত্রী কবিতা গুহ এলাকার এক দুস্কৃতীর মদতে তাদের ১৭ বছরে মেয়েকে বেশ কিছুদিন থেকে দেহ ব্যবসায় নামানোর জন্য জোর করতে থাকে । মেয়ে রাজি না হওয়ায় তাঁকে মারধর করার অভিযোগও উঠেছে বাবা ও মায়ের বিরুদ্ধে। এরপর সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে গেলে গ্রামবাসীদের কাছে মেয়েটি সমস্যার কথা খুলে বললে সরব হয় গ্রামবাসীরা। এবং নাবালিকাকে নিজেদের হেফাজতে রেখে দেয় তাঁরা।

    গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার সকালে মিঠু গুহ এলাকার এক দুস্কৃতীকে গ্রামে ডেকে পাঠান । মেয়েকে তাদের হেফাজতে তুলে দেওয়ার কথা বলে গ্রামবাসীদের উদ্দেশ্যে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা ছাড়াও গ্রামবাসীদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় বলে অভিযোগ ওঠে ওই দুস্কৃতীর বিরুদ্ধে।

    জানা গিয়েছে, এরপরেই এদিন সকালে গ্রামবাসীরা একজোট হয়ে অভিযুক্ত বাবা ও দুস্কৃতী অজয় নস্করকে গাছে বেঁধ রেখে মারধর করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

    তবে মেয়ের আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বাবা মিঠু গুহ। ঘটনাস্থল থেকে ওই দুই অভিযুক্তকে পুলিশ উদ্ধার করে রায়গঞ্জ থানায় নিয়ে আসে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করা হবে বলে জানানো হয়েছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশের পক্ষ থেকে।

    First published:

    Tags: Flesh Trade, Minor forced into flesh trade, Prostitution