কুলতলিতে খুনের বদলা খুন

জোড়া খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার কুলতলিতে। বৃহস্পতিবার কুলতলির জজেরহাটে খুন হন তৃণমূল কর্মী মোসালেম ঘরামি। খুনে অভিযুক্ত সিরাজুল লস্করের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। তাদের গুলিতে খুন হন সিরাজুলের মা। ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি।

জোড়া খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার কুলতলিতে। বৃহস্পতিবার কুলতলির জজেরহাটে খুন হন তৃণমূল কর্মী মোসালেম ঘরামি। খুনে অভিযুক্ত সিরাজুল লস্করের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। তাদের গুলিতে খুন হন সিরাজুলের মা। ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কুলতলি: এ যেন খুনের বদলা খুন। জোড়া খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার কুলতলিতে। বৃহস্পতিবার কুলতলির জজেরহাটে খুন হন তৃণমূল কর্মী মোসালেম ঘরামি। খুনে অভিযুক্ত সিরাজুল লস্করের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। তাদের গুলিতে খুন হন সিরাজুলের মা। ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি।

    বৃহস্পতিবার সন্ধেয় কুলতির জজেরহাটে একটি চায়ের দোকানে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হন তৃণমূল কর্মী মোসলেম ঘরামি। খুব কাছ থেকে তাঁকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। মোসালেমের উপর হামলায় নাম জড়ায় সিরাজুল লস্কর নামে এক ব্যক্তির। এরপরই আর এক দল দুষ্কৃতী সিরাজুলের বাড়িতে হামলা চালায়। তাকে না পেয়ে আক্রমণ করে সিরাজুলের মা রহিমা লস্করকে। দুষ্কৃতীদের গুলিতে মারা যান তিনি। হামলার অভিযোগ উঠেছে মোসলেমের অনুগামীদের বিরুদ্ধে। ঘটনার দীর্ঘক্ষণ পর এলাকায় ঢোকে পুলিশ।

    ওই তৃণমূল কর্মীর অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে দিন কয়েক আগে, তাঁর বাড়িতে হামলার অভিযোগ ওঠে সিরাজুলের বিরুদ্ধে। কুলতলি থানায় অভিযোগ দায়ের হয়। বুধবার থেকে ছাড়া পায় সে। বৃহস্পতিবারের ঘটনা সেই পুরনো শক্রুতার ফল কিনা, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    First published: