ডিভিসির জল ছাড়ায় নতুন করে চিন্তার ভাঁজ হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বর্ধমানের বাসিন্দাদের

বৃষ্টি কমেছে, কিন্তু ডিভিসির জল ছাড়ায় নতুন করে চিন্তার ভাঁজ হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বর্ধমানের বাসিন্দাদের।

বৃষ্টি কমেছে, কিন্তু ডিভিসির জল ছাড়ায় নতুন করে চিন্তার ভাঁজ হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বর্ধমানের বাসিন্দাদের।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: বৃষ্টি কমেছে, কিন্তু ডিভিসির জল ছাড়ায় নতুন করে চিন্তার ভাঁজ হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বর্ধমানের বাসিন্দাদের। প্লাবন পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায় ঘর বাড়ি ছেড়ে ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিতে হয়েছে। এদিকে ক্রমাগত জল ছাড়ায় ডিভিসির বিরুদ্ধে ক্ষোভ চেপে রাখলেন না মুখ্যমন্ত্রী। উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়ে বললেন, ডিভিসি নিজেদের মতো করে জল ছাড়লে রাজ্য সরকারও আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে।

    ডিভিসির ছাড়া জলে ইতিমধ্যেই প্লাবন পরিস্থিতি হাওড়ার উদয়নারায়নপুরের ১১টি গ্রামপঞ্চায়েত। জলমগ্ন উদয়নারায়ণপুরের, হরিহরপুর, কুর্চি, ঘোলা, শিবাণীপুর, ভবানীপুর, ডিহিবুরশূত । ১৩টি ত্রাণশিবির খোলা হয়েছে এছাড়াও ২০টি স্কুলে ত্রাণশিবির করা হয়েছে। বন্যা কবলিত এলাকা ঘুরে দেখেন মন্ত্রী অরূপ রায় ও জেলাশাসক এবং স্থানীয় বিধায়করা।

    আমতা দু নম্বর ব্লক প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা--উদয়নারায়ণপুর থেকে জল নেমে আমতায় গিয়ে জল জমবে।

    পশ্চিম মেদিনীপুর চন্দ্রকোণা ক্ষীরপাই থেকে মেদিনীপুর এবং রোড যাওয়ার রাস্তা মনসতলা ও কেঠে চাতাল জলমগ্ন ৷ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন মেদিনীপুর থেকে চন্দ্রকোণা রোড যাওয়ার রাস্তা জল কমতে শুরু করেছে ৷ ওপর ঘাটাল পুরসভার ১২টি ওয়ার্ড ঘাটল পঞ্চায়েত সমিতির বেশ কয়েকটি গ্রাম পঞ্চায়েত এর মধ্যে জলের তলায় চল গেছে এখনও পর্যন্ত ঘাটালে জল বেড়েছে ৷ ডিভিসি থেকে জল ছাড়া এবং গড়বেতা এবং বাঁকুড়ার প্রচুর বৃষ্টির জন্য শীলাবতি নদী হয়ে ঘাটালের শিলাবতীতে এসে মিশেছে, এর ফলেই জল বেড়েছে ঘাটালে ৷

    বাঁকুড়া বাঁকুড়ার দারকেশ্বর এবং গন্ধেশ্বরী নদীর ভাঙনের পর এবার নতুন করে প্লাবিত হল বাঁকুড়ার পাত্রসায়র ব্লকের পাঁচপাড়া, কাশিপুর, নারায়ণপুর সহ বেশ কিছু গ্রাম। ডিভিসি জল ছাড়ায় গতকাল থেকে দামোদর নদীর পাড় ভেঙে জলমগ্ন হয় এই সমস্ত গ্রামগুলি, তার ফে জলবন্দি হয়ে পড়ে গ্রামের বহু মানুষ একদিকে প্রশাসনের তৎপরতায় জলবন্দি মানুষদের কাছে পৌঁছনো হলেও, অন্যদিকে বেশ কিছু এলাকায় ত্রাণ না পৌঁছনোয় ক্ষোভ গ্রামবাসীদের। গন্ধেশ্বরী এবং দারকেশ্বর নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয় নদী তীরবর্তী কেশিয়াপোল গ্রাম ভেঙে পড়ে বহু পাকা ও মাটির বাড়ি ৷

    গতকাল বন্যা পরিস্থিতি দেখতে প্রশাসনের আধিকারিক ও নেতা মন্ত্রীরা এলেও, আজ দেখা নেই কারোর। গতকাল স্কুলে আশ্রয় নিয়েছিল আজ সকালে নদীর জল কমার পরে, নিজেরাই উদ্ধারকাজে হাত লাগায় ৷ প্রশাসনের সহযোগিতার আশায় বসে আছে

    বর্ধমান

    হুগলি গতকাল রাত থেকে দারকেশ্বর নদীর জলস্তর বাড়তে শুরু করে৷ বাঁকুড়ায় গন্ধেশ্বরীর নদীর বাঁধ ভেঙে জল ঢোকে দারকেশ্বরে তার ফলে জলস্তর বাড়তে শুরু করে ৷ আরামবাগ পুরসভা ২, ১২ ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ড জলমগ্ন হয়ে পড়ে প্রায় ৩০০ পরিবারকে উদ্ধার করে তাদের ত্রাণ শিবিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আজ সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় জলের তোড়ে ভেসে কেষ্ট ধীবর নামে এক ব্যক্তি ৷

    আরামবাগ ব্লকের সালেপুর গ্রামপঞ্চেয়েতে ডহর কুণ্ডের কাছে নদীর বাঁধ ভাঙন ৷ খানাকুলের পাঁচটি পঞ্চায়েত ও আরামবাগের তিনটি পঞ্চায়েতের প্রায় ২৭টি-র মোত গ্রাম জলমগ্ন হয়ে পড়ে স্থানীয় মানুষ ও প্রশাসনের উদ্যোগে ৩০০০ মানুষকে উদ্ধার করা হয় ৷

    রান্না খাবার দেওয়া হয় ৷ পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করায় বিপর্যয় মোকবিলার দল পৌঁছয় অন্যদিকে ডিভিসি যে পরিমাণ জল ছেড়েছে, আস্তে আস্তে খানাকুলে ঢুকতে সময় লাগবে দামোদর, মুণ্ডেশ্বরী নদীর আশপাশের নীচু জায়গায় বন্যার আশঙ্কা করে অন্য জায়গায় সরানো হয় ৷

    প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বন্যা মোকাবিলায় সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া আছে ৷ নদীর বাধ যদি না ভাঙে, তাহলে বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে ত্রাণ নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে এলাকাবাসীর ৷

    বন্যা পরিস্থিতি সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কোনও আলোচনা ছাড়াই জল ছাড়ছে ডিভিসি ওদের জন্যই বন্যা পরিস্থিতি ৷ এটাকেই ম্যান মেড বন্যা বলি ৷ ওরা নিজেদের মতো চললে ৷ আমরাও আইনানুগ ব্যবস্থা নেব ৷ গরমের সময় পুরুলিয়া, বাঁকুড়া জলকষ্টে ভুগবে ৷ আর অন্য সময় ভাসবে, এটা হতে পারে না ৷ ’

    First published: