corona virus btn
corona virus btn
Loading

বন্ধ হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার হল মহিলার মৃতদেহ

বন্ধ হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার হল মহিলার মৃতদেহ

বন্ধ হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার হল এক গৃহবধূর রক্তাক্ত মৃতদেহ। মৃতার নাম সন্ধ্যা মান্না। দক্ষিণ ২৪ পরগণার কাকদ্বীপ থানার অন্তর্গত লঙ্কাবাজার এলাকার একটি বেসরকারি হোটেল থেকে সোমবার সকালে উদ্ধার হয় মৃতদেহ।

  • Share this:

#কাকদ্বীপ: বন্ধ হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার হল এক গৃহবধূর রক্তাক্ত মৃতদেহ। মৃতার নাম সন্ধ্যা মান্না। দক্ষিণ ২৪ পরগণার কাকদ্বীপ থানার অন্তর্গত লঙ্কাবাজার এলাকার একটি বেসরকারি হোটেল থেকে সোমবার সকালে উদ্ধার হয় মৃতদেহ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

জানা গিয়েছে, নামখানার বাসিন্দা ঐ মহিলা রবিবার রাতে স্বামীর পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তিকে নিয়ে হোটেলে ওঠে। সোমবার সকালে হোটেলের ওই ঘর থেকেই পাওয়া যায় তার মৃতদেহ। কিন্তু যে ব্যক্তির সাথে ঐ মহিলা হোটেলের ঘরে ঢুকেছিল তার কোনও খোঁজ মেলেনি এদিন সকালে।  মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। মহিলার সন্দেহভাজন ওই সঙ্গীর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। কি কারনে খুন সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে কাকদ্বীপ থানার পুলিশ।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর এরকমই এক ঘটনা ঘটে ক্যানিংয়ে ৷ দক্ষিণ ২৪ পরগণার ক্যানিং থানার বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন একটি লজ থেকে উদ্ধার হয় এক ব্যক্তি মৃতদেহ ৷ পুলিশ জানায়, মৃত ব্যক্তির নাম খালেক মোল্লা ৷ বয়স ৫০ বছর ৷

বৃহস্পতিবার দুপুরে সাকিনা বিবি নামে এক মহিলাকে নিয়ে এই লজটিতে ওঠেন খালেক। কিছুক্ষণ পরেই হোটেলের ঘর থেকে খালেকের নিথর দেহ উদ্ধার হয়। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপর মৃতদেহ হাসপাতাল  ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায় ওই লজ কর্তৃপক্ষ । প্রায় ঘণ্টাখানেক সেখানে পড়ে থাকার পর ক্যানিং থানার পুলিশ এসে উদ্ধার করে মৃতদেহ। কিন্তু কিভাবে মারা গেলেন ঐ ব্যক্তি ? তা নিয়ে তদন্ত শুরু চালাচ্ছে ক্যানিং থানার পুলিশ।

First published: October 3, 2016, 3:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर