corona virus btn
corona virus btn
Loading

টাকা-গয়না না পেয়ে বাবা-মাকে লোহার রড দিয়ে মারল ছেলে

টাকা-গয়না না পেয়ে বাবা-মাকে লোহার রড দিয়ে মারল ছেলে
অত্যাচারিত বৃদ্ধ

টাকা-গয়না না পেয়ে বাবা-মাকে লোহার রড দিয়ে মারল ছেলে

  • Share this:

 #কাটোয়া: রড হাতে তেড়ে আসছে ছেলে। রডের আঘাতে বাবার কপাল ফেটে রক্ত ঝরছে। সসপ্যানের ঘায়ে মাথা ফেটেছে মায়েরও। প্রাণ ভয়ে পালাতে চান বাবা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাড়ির পাশে আট ফুটের পাঁচিলে উঠে বসেন অসহায় বাবা। দাবি মত টাকা, গয়না, এলআইসির কাগজ, লকারের চাবি না পেয়ে কাটোয়ায় ছেলের হাতে আক্রান্ত বাবা, মা। গ্রেফতার অভিযুক্ত ছেলে অমিত মল্লিক।

পারিবারিক হিংসার আরও এক জ্বলন্ত উদাহরণ। কাটোয়ার মাধবীতলায় ছেলের হাতে আক্রাম্ত বাবা, মা। ঘটনার সূত্রপাত বুধবার সকাল সাড়ে নটায়।

বাবা তাপস মল্লিকের কাছে লকারের চাবি চায় ছেলে অমিত। চাবি নেই , জানান বাবা। মা বুলু মল্লিক জানান, ব্যাগের মধ্যে চাবি আছে। কথা কাটাকাটির মধ্যে রড দিয়ে বাবার মাথায় আঘাত করে অমিত। তাঁকে বাঁচাতে গেলে মায়ের মাথায় সসপ্যান দিয়ে আঘাত করে ছেলে। রক্তাক্ত অবস্থায় কোনওরকমে বাড়ি থেকে পালিয়ে টোটো নিয়ে থানায় চলে যান মা।

ছেলের মারের হাত থেকে বাঁচতে বাড়ি থেকে পালানোর চেষ্টা করেন তাপস মল্লিক। কিন্তু না পেরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কোনওরকমে বাড়ির পাশে আট ফুটের পাঁচিলে উঠে বসেন বৃদ্ধ। প্রায় তিন ঘম্টা পর কাটোয়া থানার পুলিশ এসে তাঁকে উদ্ধার করে।

মা বুলু মল্লিককে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে ভরতি করে পুলিশ। ঘটনার পর ঘরের মধ্যে দরজা বন্ধ করে বসে ছিল অমিত। থানায় নিয়ে যাওয়ার সময়ে তাকে মারধর করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

বীরভূমের কীর্ণাহারে শরডাঙা হাইস্কুলে শিক্ষকতা করত অমিত। ছমাস আগে স্কুল ছেড়ে বাড়ি ফিরে বাবার লোহার ব্যবসা দেখাশোনা শুরু করে। বাড়ির নীচেই হার্ডওয়্যারের দোকান। কর্মীদের অভিযোগ, টাকাপয়সার জন্য প্রায়েই বাবা, মাকে মারধর করত অমিত। এমনকি, তার অত্যাচারে বাড়ি ছাড়েন স্ত্রী ও উনিশ বছরের ছেলে।

বাবা ছেলেকে ক্ষমা করতে নারাজ। কিন্তু স্নেহে অন্ধ মা একমাত্র ছেলের নামে এফআইআর করতে চান না।

এই প্রথম নয়। এর আগে ছেলের মারে পা ভেঙে গিয়েছিল তাপস মল্লিকের। বার বার আঘাতে ভেঙেছে বিশ্বাস। ছেলের সঙ্গে আর থাকতে চান না অসহায় বাবা, মা।

First published: December 13, 2017, 7:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर