Bengal Poll 2021 Violence: মাঝ-রাস্তায় কংগ্রেস কর্মীকে লক্ষ্য করে বোমাবাজি, রাজনৈতিক মৃত্যু ঘিরে ভোটের আগে উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদ

Bengal Poll 2021 Violence: মাঝ-রাস্তায় কংগ্রেস কর্মীকে লক্ষ্য করে বোমাবাজি, রাজনৈতিক মৃত্যু ঘিরে ভোটের আগে উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদ

কংগ্রেস কর্মীকে বোমা মেরে খুন। প্রতীকী ছবি।

মুর্শিদাবাদের (Murshidabad Election) হরিহরপাড়া থানা এলাকায় কংগ্রেস কর্মীকে (Congress Supporter) বোমা মেরে (Charged Bomb) খুন করার অভিযোগ উঠল দুষ্কৃতীদের (Miscreant) বিরুদ্ধে।

  • Share this:

#হরিহরপাড়াঃ বিধানসভা নির্বাচনের (West Bengal Assembly Election 2021) আগে উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদ। মুর্শিদাবাদের (Murshidabad Election) হরিহরপাড়া থানা এলাকায় কংগ্রেস কর্মীকে (Congress Supporter) বোমা মেরে (Charged Bomb) খুন করার অভিযোগ উঠল দুষ্কৃতীদের (Miscreant) বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদ জেলার হরিহরপাড়া থানার অন্তর্গত বিলধারীপাড়ার খোষালপুর এলাকায়। ঘটনায় আবুল কাশেম (৫৫) নামে এক কংগ্রেস কর্মী মৃত্যু হয়েছে। বাড়ির কাছে মসজিদ থেকে নমাজ পড়ে বাড়ি ফেরার সময় তাঁকে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এ দিন রাজনৈতিক সংঘর্ষের (Political Clash) জেরে এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি হয়। বোমার আঘাতে গুরুতর জখম হন আবুল কাশেম। তাঁকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে (Murshidabad Medical College Hospital) নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত (Brought Dead) বলে ঘোষণা করেন। ঘটনায় অভিযোগের তির শাসক দলের (TMC) বিরুদ্ধে। এ দিনের ঘটনায় আরও ১০জন গুরুতর আহত হয়েছেন। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় হরিহরপাড়া থানার পুলিশ। ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পরেও কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় মঙ্গলবার অভিযুক্ত দুষ্কৃতিদের গ্রেফতারের দাবিতে হরিহরপাড়া ভাকুড়ি রাজ্য সড়ক অবরোধ করে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস-সিপিএম। জেলার পুলিশ সুপার কে সাবেরী রাজকুমার বলেন, "এই ঘটনায় ৭জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও কয়েকজন অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে। পুরো ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।" তিনি আর বলেন, "অভিযুক্ত সকলকেই গ্রেফতার করা হবে। পারিবারিক বিবাদের সঙ্গে রাজনৈতিক কারণ যুক্ত হয়েছে এবং তা ক্রমেই সংঘর্ষের রূপ নেয়। তারপর চলে ব্যাপক বোমাবাজি।"

হরিহরপাড়া বিধানসভাতে অষ্টম দফায় নির্বাচন Phase 8 Election)। আগামী ২৯ এপ্রিল বাকি নির্বাচনের। তার দশ দিন আগে বোমা হামলায় মৃত্যু হল কংগ্রেস কর্মীর। মৃতের ছেলে মাসুদ আলি বলেন, "বাবা রাতের বেলায় নামাজ পড়ে এসে রাস্তার ধারে বসে গল্প করছিল। সেই সময় কয়েক জন দুষ্কৃতী এসে বোমাবাজি শুরু করে। বমার আঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এরপর তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। আমরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি।"

হরিহর পাড়ার রায়পুর অঞ্চলের কংগ্রেস নেতা জাহাঙ্গীর শেখের অভিযোগ, কাশেম আলি সক্রিয় কর্মী ছিল। এই এলাকায় আমাদের সংগঠন ভাল বলেই ভোটের আগে সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে তৃণমূল। যদিও তৃণমূলের প্রার্থী ও বিধায়ক নিয়ামত শেখ বলেন, "আমাদের কর্মীদের ওপর প্রথম বোমা ছোঁড়া হয়। আমাদের কয়েকজন কর্মী গুরুতর আহত হয়েছে। পুলিশ নিরপেক্ষ তদন্ত করলেই সঠিক তথ্য উঠে আসবে।"

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Shubhagata Dey
First published: