Home /News /south-bengal /
ব্যাপক লুটপাটের পরিকল্পনা ছিল, বর্ধমানে ডাকাতির আগেই গ্রেফতার ছয় দুষ্কৃতী

ব্যাপক লুটপাটের পরিকল্পনা ছিল, বর্ধমানে ডাকাতির আগেই গ্রেফতার ছয় দুষ্কৃতী

তাদের কাছ থেকে ভোজালি, লোহার রড, লাঠি, সাইকেলের চেন, নাইলনের দড়ি পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি পুলিশের।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: ডাকাতির আগেই ছ’জনকে গ্রেফতার করল বর্ধমান থানার পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ভোজালি, লোহার রড, লাঠি, সাইকেলের চেন, নাইলনের দড়ি পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি পুলিশের। ডাকাতির উদ্দেশ্যে কয়েক জন বর্ধমানের লাকুড্ডি এলাকায় দুই নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে জমায়েত হয়েছে বলে গোপন সূত্রে খবর পায় পুলিশ। সেই খবর পাওয়ার পরই বর্ধমান থানার পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালায়। তাতেই ওই ছ’জনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়।

বর্ধমান থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন এলাকা থেকে জমায়েত হয়েছিল তারা। ডাকাতি করার পরিকল্পনা ছিল তাদের। কোথায় এই ডাকাতি হত তা জানার চেষ্টা চলছে। তারা রাস্তায় ছিনতাই করতে বের হচ্ছিল নাকি অন্য কোথাও লুট করার মতলব ছিল তা জানার চেষ্টা চলছে। প্রত্যেককেই আলাদা আলাদাভাবে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছেন তদন্তকারী পুলিশ অফিসাররা।

তবে বর্ধমান থানা সংলগ্ন স্বর্ণ ঋণদানকারী সংস্থায় দিনে দুপুরে ডাকাতির ঘটনার এখনও কিনারা করতে পারেনি পুলিশ। ওই স্বর্ণ ঋণদানকারী সংস্থায় পাঁচ-ছ’জন যুবক দিনের আলোয় ক্রেতা সেজে ঢুকে আগ্নেয়াস্ত্র বার করে সবাইকে খুন করার ভয় দেখিয়ে ব্যাপক লুটপাট চালায়। ভল্ট থেকে তিরিশ কেজির ওপর সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দেয় তারা। যাবার সময় তারা  গুলি চালায়। তাতে স্থানীয় এক ব্যক্তি জখম হন। এরপর মোটর সাইকেলে চড়ে চম্পট দেয় ওই দুষ্কৃতীরা। দুষ্কৃতীরা মোটর সাইকেল নিয়ে বর্ধমান শহর হয়ে দামোদরের সদরঘাট সেতু পার হয়ে খণ্ডঘোষ দিয়ে হুগলির গোঘাট হয়ে ঝাড়খন্ডে চলে গিয়েছে বলে রাস্তার বিভিন্ন সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ধারণা পুলিশের।

ডাকাতি করার আগে তারা বেশ কয়েকবার রেইকি করেছিল বলে মনে করছে পুলিশ। শহরের রাস্তাঘাট সম্পর্কেও বিশেষভাবে পরিচিত হয়েছিল তারা। জনবহুল এলাকায় ঘিঞ্জি রাস্তার ওপর ওই স্বর্ণ ঋন সংস্থায় এই অপারেশন বেশ ঝুঁকির ছিল। তা সত্ত্বেও তারা প্রায় আধঘন্টা ধরে অপারেশন চালায়। দুষ্কৃতীরা যথেষ্ট পেশাদার বলেই মনে করছে পুলিশের তদন্তকারী অফিসাররা।

 পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই ঘটনায় দুষ্কৃতীদের পরিচিত এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে লুটের ঘটনায় যুক্তদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এই ঘটনার সঙ্গে পাশের রাজ্যের দুষ্কৃতী দলে যোগ রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে  এ ব্যাপারে ওই রাজ্য ও অন্যান্য জেলার পুলিশের মধ্যে তথ্য আদান প্রদান চলছে।

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Bardhaman

পরবর্তী খবর