'দলকে শক্তিশালী করেছিলাম, পুরস্কার পাচ্ছি', আক্ষেপ শিশির অধিকারীর

দুই ছেলের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের ঘটনা সরব শিশির অধিকারী৷

কাঁথি পুরসভার গোডাউনে রাখা ত্রাণের ত্রিপল চুরিতে মদত দেওয়ার অভিযোগে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) এবং তাঁর ভাই সৌমেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে৷

  • Share this:

    #কাঁথি: দুই ছেলে শুভেন্দু অধিকারী এবং তাঁর ভাই সৌমেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে ত্রাণের জন্য রাখা ত্রিপল চুরির অভিযোগ দায়ের হওয়ার ঘটনায় মুখ খুললেন শিশির অধিকারী৷ তাঁর অভিযোগ, নারদ কাণ্ডে শাসক দলের নেতাদের গ্রেফতারির পাল্টা হিসেবেই মিথ্যে অভিযোগ সাজানো হচ্ছে৷ একই সঙ্গে কাঁথির প্রবীণ সাংসদ আক্ষেপের সুরে বলেন, 'দলটাকে আমরা শক্তিশালী করেছিলাম, এখন তার পুরস্কার পাচ্ছি৷'

    কাঁথি পুরসভার গোডাউনে রাখা ত্রাণের ত্রিপল চুরিতে মদত দেওয়ার অভিযোগে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং তাঁর ভাই সৌমেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে৷ অভিযোগ, শুভেন্দু এবং সৌমেন্দুর নির্দেশেই ত্রিপল চুরি করছিলেন কাঁথি পুরসভার এক কর্মী৷ সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর কয়েকজন জওয়ানও উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ৷

    রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকেই এমন অভিযোগ করা হচ্ছে বলে দাবি বিজেপি নেতাদের৷ একই অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু ও সৌমেন্দুর বাবা শিশির অধিকারীও৷ কাঁথির সাংসদের অবশ্য দাবি, আইনি মোকাবিলার জন্য তৈরি হচ্ছেন তাঁরাও৷ শিশিরবাবু বলেন, 'এটা আদালতে দেখা যাবে৷ বাইরে বলে কোনও লাভ হবে না৷ আমরা দলটাকে শক্তিশালী করেছিলাম৷ এখন তার পুরস্কার পাচ্ছি৷ ওখানে কোনও কেন্দ্রীয় বাহিনী ছিল না৷ ওই ত্রিপল পুরসভারই নয়৷ '

    প্রবীণ সাংসদ আরও অভিযোগ করেন, নারদ কাণ্ডে রাজ্যের মন্ত্রী সহ শাসক দলের নেতাদের গ্রেফতারির পাল্টা তাঁর দুই ছেলেকে হেনস্থার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ শিশিরবাবু বলেন, 'ভোররাতে মন্ত্রীদের তুলেছিল, অতএব এবার শুভেন্দু অধিকারীর ভাইকে তুলে নিতে হবে৷ আমাদের কপালে যা দুর্ভোগ আছে আমরা সইতে রাজি আছি৷'

    শুধু ত্রিপল চুরির ঘটনাই নয়, সেচ দফতরে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা তোলার অভিযোগে শনিবারই রাখাল বেরা নামে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে মানিকতলা থানার পুলিশ৷ সবমিলিয়ে জোড়া অস্বস্তিতে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা৷ তবে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়৷ তাঁর দাবি, তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: