খারাপ ট্যাবলো, পায়ে হেঁটেই জনসংযোগ সারলেন শুভেন্দু অধিকারী 

হওয়ার কথা ছিল, তিনি এলেন, দেখলেন ও জয় করলেন। যদিও মাঝে অল্প সময়ের জন্যে তাল কাটল।

হওয়ার কথা ছিল, তিনি এলেন, দেখলেন ও জয় করলেন। যদিও মাঝে অল্প সময়ের জন্যে তাল কাটল।

  • Share this:

#দাঁতন: হওয়ার কথা ছিল, তিনি এলেন, দেখলেন ও জয় করলেন। যদিও মাঝে অল্প সময়ের জন্যে তাল কাটল। ট্যাবলো খারাপ হয়ে যাওয়ার কারণে রোড শো বদলে গেল মিছিলে। তবে মিছিল শেষ করে মঞ্চে উঠে অবশ্য এক ইঞ্চি জমি ছাড়লেন না তার সদ্য ছেড়ে আসা পুরনো দলকে। লড়াইয়ের ময়দানে যত বাধা আসুক, তিনি যে ছেড়ে দেবেন না তা ফের দাঁতনের ময়দানে বুঝিয়ে দিলেন বিজেপির শুভেন্দু। বিজেপি'তে যোগ দেওয়ার পরে তার প্রথম সভা ছিল বর্ধমানের পূর্বস্থলীতে। যেখানে দিলীপ ঘোষের সাথে তিনি মঞ্চ শেয়ার করেছেন। এরপর গত ২৪ ডিসেম্বর একেবারে নিজের গড় কাঁথিতে রোড শো ও সভা করেন তিনি। সেই সভায় যত সংখ্যক মানুষ হাজির হয়েছিলেন তা দেখে খুশি হয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। নিজের কমফোর্ট জোন থেকে বেরিয়ে পাশের জেলায় তিনি কি করতে পারেন সেদিকে নজর ছিল রাজনৈতিক মহলের। শুভেন্দুর দাবি অবশ্য, "দাঁতন আমার বাড়ি। আমি যখনই আসি তখনই প্রচুর লোক আমার জন্যে আসে।" বেলা দু'টোয় রোড শো শুরু হওয়ার কথা ছিল দাঁতন পেট্রল পাম্প থেকে। ২.২ কিমি দূরে রোড শো শেষ হওয়ার কথা ছিল সরাই বাজারে। যেখানে বক্তব্য রাখার কথা ছিল শুভেন্দুর। যদিও রবিবারের দুপুরে  শুভেন্দু হাজির হলেন বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ। এসেই অবশ্য ভিড়ে মিশে গিয়েছিলেন তিনি৷ তার জন্যে আগে থেকেই সাজানো ছিল ট্যাবলো। 'আর নয় অন্যায়' লেখা ফ্লেক্স দিয়ে সাজানো গাড়িতে সওয়ার হন তিনি। সঙ্গে তার পশ্চিম মেদিনীপুরের সহকর্মীরা। তবে তার ট্যাবলো এগিয়েছে প্রথম থেকেই হেলতে-দুলতে। তবে পাল্লা দিয়ে শুভেন্দু অনুগামীরাও এগিয়েছেন। বিজেপির পতাকা হাতে সমর্থকরা, বাদ্যযন্ত্র নিয়ে ও মহিলারা এগিয়েছেন ভিড় ঠেলতে ঠেলতে। দাঁতন রোডে রাস্তার দু'ধারের বাড়ির ছাদ, বারান্দা থেকে মানুষ ভিড় করে দেখছেন শুভেন্দুর রোড শো। তবে ১.৫ কিলোমিটার রাস্তা যাওয়ার পরেই বিগড়ে যায় ট্যাবলো। মিনিট ১০ চেষ্টা করেও অবশ্য ট্যাবলো এগোয়নি। ফলে পায়ে হেঁটেই এক কিলোমিটার রাস্তা যান শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য বলেছেন, এর চেয়ে বড় মিছিল বা বেশি কিলোমিটার হাঁটা তার অভ্যাস আছে। বিজেপি'তে যোগ দেওয়ার পরে কার্যত তিনি নিজেকেই আরও একবার পরিচয় করালেন দাঁতন বাসীর মাধ্যমে। এদিন মঞ্চ থেকে পুরনো দিনের কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি। শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, "বাম আমলে যারা ঘরছাড়া ছিলেন তারা আমার বাড়িতে থাকতেন। ফলে এই এলাকার সাথে আমার সম্পর্ক অনেক দিন ধরেই রয়েছে।" নতুন বছরেও তিনি একাধিক সভা করতে চলেছেন। আগামী ৪ জানুয়ারি তিনি সভা করবেন পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা। ৮ জানুয়ারি সভা  করবেন নন্দীগ্রামে। এর পাশাপাশি তিনি সভা করতে চেয়েছেন ডায়মন্ড হারবারে। ফলে রাজনৈতিক লড়াইয়ে এক ইঞ্চি জমি ছেড়ে রাখতে রাজি নন বিজেপির শুভেন্দু অধিকারী

Published by:Akash Misra
First published: