Home /News /south-bengal /
মেয়ে ও স্ত্রীকে খুন করে, মৃতদেহর পাশে বসে বিরিয়ানি খেল বাবা

মেয়ে ও স্ত্রীকে খুন করে, মৃতদেহর পাশে বসে বিরিয়ানি খেল বাবা

representative image

representative image

মেয়ে ও স্ত্রীকে খুন করেও একেবারে স্বাভাবিক ছিলেন বছর পঁয়তাল্লিশের শেখর দেবনাথ। শুধু খুন নয়, খুনের পর দুই রাত মেয়ে ও স্ত্রীর মৃতদেহ ছিল তাঁর বাড়িতেই। অমানুষিক এই ঘটনাটি ঘটে উত্তর ২৪ পরগনার মছলন্দপুরে।

  • Share this:
    #মছলন্দপুর,  উত্তর ২৪ পরগনা: মেয়ে ও স্ত্রীকে খুন করেও একেবারে স্বাভাবিক ছিলেন বছর পঁয়তাল্লিশের শেখর দেবনাথ। শুধু খুন নয়, খুনের পর দুই রাত মেয়ে ও স্ত্রীর মৃতদেহ ছিল তাঁর বাড়িতেই। অমানুষিক এই ঘটনাটি ঘটে উত্তর ২৪ পরগনার মছলন্দপুরে। স্ত্রী মিঠু দেবনাথ ও মেয়ে পূজা দেবনাথকে  নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করার পরও শেখরবাবুর কথাবার্তা বা আচরণে কোনও অসঙ্গতি ধরা পড়ে নি! বিন্দুমাত্র আঁচ করতে পারেনি পাড়া প্রতিবেশীরাও! কিন্তু, শেখরবাবুর মেয়ে পূজা এবার মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছিল। পরীক্ষার হলে অনুপস্থিত থাকায়, সন্দেহ হয় সহপাঠিদের। তখন তারাই পূজার প্রতিবেশীদের থেকে খবর নেওয়ার চেষ্টা করে। জানতে চায়, পূজা কোথায়? কেন পরীক্ষা দিতে অাসেনি? প্রতিবেশীরা শেখরবাবুকে মেয়ের কথা জিজ্ঞেস করলে কোনও সদুত্তর মেলে না! গতকাল বিকেল থেকেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন শেখরবাবু। আচরণে দেখা যায় অসঙ্গতি। পাড়া প্রতিবেশীদের হঠাৎ করেই গালিগালাজ করা শুরু করেন, অকারণে ছুঁড়তে থাকেন ইট পাটকেল।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আসে মছলন্দপুর থানার পুলিশ। শেখরবাবু দোতলার ঘরের জানলা থেকে মুখ বাড়িয়ে বাইরে জমে থাকা মানুষ ও পুলিশের ভিড়ের উদ্দেশ্যে জানান, স্ত্রী, মেয়ে ছাড়া কাকে নিয়ে তিনি বাঁচবেন? বাড়ির মূল দরজায় তালা লাগানো ছিল, তাই দূর থেকেই তাঁকে স্বান্তনা দেন পাড়া প্রতিবেশীরা। কিন্তু, ''আত্মহত্যা করব'',  হুমকি দিয়ে, সত্যিই দোতলার ঘরে, গলায় ফাঁশ লাগিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন  শেখরবাবু। পুলিশ ও স্থানীয়রা দরজা ভেঙে তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে মছলন্দপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ও তারপর আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে যান। ধীরে ধীরে সুস্থ হন শেখরবাবু। প্রকাশ্যে আসে সত্যি! আজ হাবরা থানার পুলিশ শেখর দেবনাথকে স্ত্রী ও মেয়েকে নৃসংশভাবে খুন করার অপরাধে গ্রেফতার করে। পাঠানো হয় বারাসাত আদালতে। খুনের প্রকৃত কারণ জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। শেখরবাবুর বাড়িতে তালা লাগিয়ে সিল করে দিয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, আর্থিক সংকটই এই নিদারুণ পরিনীতির কারণ কিন্তু, একতলার একটা খোলা জানলা দিয়ে প্রতিবেশীরা দেখেন, সামনের টেবিলে র‍য়েছে দুটো মদের বোতল আর বিরিয়ানির প্লেট। গ্লাসও র‍য়েছে দুটি। এখানেই প্রশ্ন ওঠে, তা হলে কি শেখরের সঙ্গে আরও কেউ ছিলেন? বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।  
    First published:

    Tags: Machlandapur, Murder Case, Shekhar Debnath

    পরবর্তী খবর