দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

অধিকার আদায় করে নেবে মতুয়ারা, বিজেপি-র অস্বস্তি বাড়িয়ে সুর চড়ালেন সাংসদ শান্তনু

অধিকার আদায় করে নেবে মতুয়ারা, বিজেপি-র অস্বস্তি বাড়িয়ে সুর চড়ালেন সাংসদ শান্তনু
বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর৷ Photo-File

শুক্রবার বনগাঁর গোপালনগরের সভা থেকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ঘোষণা ছিল আগামী এক বছরের মধ্যে সিএএ-র মাধ্যমে সকলকে নাগরিকত্ব দিয়ে দেওয়া হবে।

  • Share this:

#বনগাঁ: কংগ্রেস, বামফ্রন্ট, তৃণমুল বা  সাম্প্রতিক কালে বিজেপি৷  কেউ তাঁদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রাখেনি। মতুয়াদের নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি নিয়ে টানাপোড়েনের জেরে এ ভাবেই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর৷

এ দিন ঠাকুরবাড়িতে মতুয়াদের সম্মেলনে বর্ণাবাদের নামে রাজনৈতিক দলের রাজনীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন তিনি।তাঁর দাবি, পশ্চিমবঙ্গে প্রায় তিন কোটি মতুয়া ধর্মের মানুষের বাস।এখানে মতুয়া ধর্মের মানুষ কেন উপেক্ষিত সেই প্রশ্ন তোলেন বিজেপি সাংসদ।উপস্থিত মতু্যা ভক্তদের কাছে বিজেপির সাংসদের প্রশ্ন, 'কোন সরকারের কাছে জবাব চাইবেন?কোনও সরকার তার জবাব দেবে না। এই সরকার আসবে ওই সরকার যাবে। জাতিগত দিক দিয়ে কত দিন  বিভাজিত করে রাখা হবে মতুয়াদের?' রাজ্য রাজনীতিতে এক তৃতীয়াংশ ভোট থাকা মতুয়ারা ভবিষ্য়তে রাজ্য়ের চালিকাশক্তি হয়ে উঠে নিজেদের অধিকার বুঝে নেওয়ার ডাক দেন তিনি।

শান্তনু বলেন, পূর্ব পাকিস্তান তৈরির আগে তাঁরাও ভারতীয় ছিলেন। তাঁরা ভারতীয় হিসেবে থাকতে চান। দেশ ভাগের সময় দুই ব্যক্তির সিদ্ধান্ত তাঁদের উপর চাপিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তাঁদের মতামত জানার প্রয়োজন বোধ করেনি কেউ। আর পূর্ব পাকিস্তান থেকে অত্যাচিরত হয়ে এদেশে আসার পর থেকেই বঞ্চিত মতুয়ারা। তাঁদের অধিকারের জন্য তিনি নির্বাচনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। মতুয়াদের কাছে প্রতিশ্রুতি ছিল সাংসদ হয়ে মতুয়াদের নাগরিকত্বের সমস্যা মেটাবেন। বাস্তাবে পার্লামেন্ট থেকে আইন পাশ হলেও লাগু হয়নি সেই আইন। আর তাতেই চটেছেন মতুয়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর।

কোনও রাজনৈতিক দলের নাম না করেই তিনি এই দিন সোচ্চার হন বর্ণবাদের বিরুদ্ধে। ক্ষোভের সঙ্গে তিনি বলেন, বর্ণবাদকে তোষণ করার জন্য রাজনৈতিক দলগুলি গঠিত হয়েছে। বরং আগামীদিনে মতুয়ারা নিজের মতো করে ভাববে বলেও এ  দিন পরিষ্কার ঘোষণা করেন বনগাঁর বিজেপি সাংসদ।

শুক্রবার  বনগাঁর গোপালনগরের সভা থেকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ঘোষণা ছিল আগামী এক বছরের মধ্যে সিএএ-র মাধ্যমে সকলকে নাগরিকত্ব দিয়ে দেওয়া হবে। সেই সভায় অবশ্য গরহাজির ছিলেন বনগাঁর সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। আজ দিলীপ ঘোষের প্রতিশ্রুতিকেই চ্যালেঞ্জ করেন শান্তনু ঠাকুর। তাঁর দাবি, তিন কোটি মতুয়া ও নমঃশুদ্রকে ভারতবর্ষে নাগরিকত্বের জন্য় ভিক্ষা করতে হচ্ছে। কংগ্রেস, সিপিএম, তৃণমুল, বিজেপি কেউ সেই ভিক্ষা দেয়নি। আর ভিক্ষা নয় অধিকার আদায়ের হুঙ্কার দিয়ে বিদ্রোহের সু টা এদিন চড়িয়ে দিলেন বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুর।

Rajorshi Roy

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 30, 2020, 1:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर