দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মেরে এক ব্যক্তির মাথা ফাটিয়ে দিল নিরাপত্তারক্ষী!

বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মেরে এক ব্যক্তির মাথা ফাটিয়ে দিল নিরাপত্তারক্ষী!
  • Share this:

#বর্ধমান: মাস্ক না থাকায় মুখে রুমাল বেঁধেছিলেন রোগীর পরিজন। তাতেই খাপ্পা হয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দিল নিরাপত্তারক্ষী! বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ  হাসপাতালের নিরাপত্তা রক্ষীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এমনটাই। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতাল চত্ত্বরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করে দেখা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

অভিযোগ,গুরুতর আহত অবস্থায় লুটিয়ে পড়লেও রক্তাক্ত ওই ব্যক্তিকে সামান্য প্রাথমিক চিকিৎসাটুকুও করার প্রয়োজন বোধ করেনি অভিযুক্ত নিরাপত্তা রক্ষীরা।হাসপাতাল সুপারের কাছে অভিযোগ দায়ের রোগীর পরিবার।

বুদবুদ থানার সন্ধীপুরের বাসিন্দা হীরালাল মিদ্দাকে মঙ্গলবার বর্ধমান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি পেটের যন্ত্রণায় ভুগছিলেন। শনিবার তাঁর অপারেশনের কথা ছিল। ডাক্তারের পরামর্শ মতো দু জন রক্তদাতাকে নিয়ে পরিবারের দু জন সার্জারি ওয়ার্ডের গেটের কাছে অপেক্ষা করছিলেন।তাদের মধ্যেই সেখ কওসর আলি মাস্ক আনতে ভুলে যাওয়ায় মুখে রুমাল বেঁধে দাঁড়িয়ে ছিলেন।অভিযোগ, সেই সময় কর্তব্যরত নিরাপত্তাকর্মী মাস্ক নিয়ে প্রশ্ন করে তাঁকে গলা ধাক্কা দিয়ে ঠেলে ফেলে দেয়।

প্রতিবাদ করলে আর এক নিরাপত্তাকর্মী লাঠি দিয়ে সজোরে কওসরের মাথায় আঘাত করে বলে অভিযোগ। সেখানেই লুঠিয়ে পড়ে কওসর।পরে আত্মীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা করানো হয়।

এই ঘটনার পরই রোগীর পরিজনেরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে আক্রান্ত হয়ে তারা প্রথমে কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েন।পরে তাঁরা ঘটনার পূর্নাঙ্গ বর্ণনা জানিয়ে হাসপাতাল সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। ঘটনা অনভিপ্রেত। অভিযোগ পেয়েছি।তদন্ত করে দেখছি মন্তব্য হাসপাতাল সুপার প্রবীর সেনগুপ্তের।

Saradindu Ghosh

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: September 19, 2020, 10:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर