Sayani Ghosh : বজ্রাঘাতে নিহতদের পাশে সায়নীর যুব তৃণমূল! খাদ্য-সামগ্রীর সঙ্গে দুয়ারে পৌঁছচ্ছে আর্থিক অনুদান...

সাহায্যে সায়নীর যুব তৃণমূল

যেমন সংগঠনকে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সায়নী (Sayani Ghosh) তেমনি যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চালাচ্ছেন কাজ। কখনও ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে পৌঁছে যাচ্ছেন ইয়াস বিদ্ধস্ত (Yaas Affected) সুন্দরবন এলাকায় তো কখনও তাঁর নেতৃত্বে বজ্রাঘাতে মৃতদের পাশে (Lightning Affected Families) পৌঁছে যাচ্ছেন তৃণ-যুবারা।

  • Share this:

    #মুর্শিদাবাদ : রাজ্য সভাপতি (TMC Youth State President) হিসেবে দায়িত্ব ভার বুঝে নেওয়ার পর থেকেই পুরোদমে মাঠে নেমে পড়েছেন যুব তৃণমূলের নব নিযুক্ত সভাপতি সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)। অভিনেত্রী সায়নীকে বিধানসভা ভোটে প্রার্থী করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। ভোটে হেরে গেলেও লড়াইয়ের ময়দানে সায়নীর মাটি কামড়ে পড়ে থাকা আলাদা নজর কেড়েছিল। সেই কারণেই তরতাজা মুখ সায়নীকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুরনো পদে বসিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। আর 'যুব'র দায়িত্ব পেতেই একদিকে যেমন সংগঠনকে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সায়নী তেমনি নির্বাচনী প্রচারের মতোই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চালাচ্ছেন কাজ। কখনও ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে পৌঁছে যাচ্ছেন ইয়াস বিদ্ধস্ত সুন্দরবন এলাকায় তো কখনও তাঁর নেতৃত্বে বজ্রাঘাতে মৃতদের পাশে পৌঁছে যাচ্ছেন তৃণ-যুবারা।

    শুক্রবার তেমনই ছবি দেখা গেল মুর্শিদাবাদ জেলাতে। সেখানে বজ্রাঘাতে মৃত ব্যক্তিদের প্রতিটি পরিবারের কাছে গিয়ে এক মাসের খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিল মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস।বাঁকুড়া জেলার সংগঠনের তরফ থেকে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারের সঙ্গে হসপিটালে গিয়ে দেখা এবং তাদের সাহায্যার্থে ৫০০০ টাকা করে অনুদান পৌঁছে দেওয়া হয়েছে ।

    গত ৭ জুন বিকেল হতেই ঝড়বৃষ্টি এবং বজ্রপাত শুরু হয় মূলত দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে। আর তাতেই রাজ্য জুড়ে মৃত্যু হল বেশ কয়েক জনের। এর মধ্যে সবথেকে বেশি মৃত্যু হয় হুগলি জেলায়। ১১ জনের মৃত্যু হয় সেখানে। এরপরেই নিহতের সংখ্যা সবথেকে বেশি ছিল মুর্শিদাবাদে। এই জেলায় ৯ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া বাঁকুড়ায় ২ এবং দুই মেদিনীপুরে ৪ জনের ও নদিয়া জেলায় ১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। হতাহতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয় রাজ্যের তরফেও। এবার সেই পরিবারদের পাশে দঁড়াতে উদ্যোগ নিল যুব তৃণমূল।

    মুর্শিদাবাদে শুধুমাত্র জঙ্গিপুর মহকুমাতেই বজ্রপাতে মারা গিয়েছেন ৭ জন। বহরমপুরে মৃত্যু হয়েছে আরও ২ জনের। আহত হয়েছেন ৭ জন। সোমবার দুপুরে যখন ঝড়বৃষ্টি শুরু হয় সেই সময় অনেকেই জমিতে চাষের কাজে ব্যস্ত ছিলেন। সেই সময়ই মর্মান্তিক দুর্যোগ নেমে আসে। শুক্রবার মুর্শিদাবাদের এইসব পরিবারগুলির সঙ্গে দেখা করে তাঁদের হাতে খাদ্য সামগ্রী ও এককালীন আর্থিক অনুদান তুলে দিলেন তৃণমূলের স্থানীয় যুব নেতারা। সেই ছবি নিজের ট্যুইটারে শেয়ার করেছেন তৃণমূলের যুব-নেত্রী সায়নী ঘোষ।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: