দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বোলপুরে বাউল বাড়িতে মধ্যহ্নভোজ সারবেন অমিত শাহ, উপহার দেওয়া হবে একতারা

বোলপুরে বাউল বাড়িতে মধ্যহ্নভোজ সারবেন অমিত শাহ, উপহার দেওয়া হবে একতারা

প্রস্তুতি প্রায় চূড়ান্ত । শুধু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আসার অপেক্ষা করছে শান্তিনিকেতন। এই শীতেও রাজনীতির আগুনে ফুটছে লাল মাটি ।

  • Share this:

Indrajit Ruj

#বোলপুর: ২০ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ বিশ্বভারতীর বিনয় ভবনের অস্থায়ী হেলিপ্যাড গ্রাউন্ডে নামতে চলেছেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা অমিত শাহ। হেলিপ্যাড গ্রাউন্ড থেকে বেরিয়ে সরাসরি তিনি চলে যাবেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর সঙ্গে সৌজন্যে সাক্ষাৎকারের জন্য বাংলাদেশ ভবনে। সেখান থেকে রবীন্দ্র ভবন, উপাসনা মন্দির ঘুরে বিশ্ব ভারতীয় সঙ্গীত ভবনে কথা বলার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে।

সেখান থেকে তাঁর ইচ্ছা রাঙামাটির দেশ শান্তিনিকেতনে যখন আসছেন, তখন কোনও বাউল শিল্পীর বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজন সারবেন । সে জন্যই বিজেপি নেতারা বিশ্বভারতীর পাশেই স্যামবাটি এলাকায় বাসুদেব দাস বাউলের বাড়িতে তাঁর দুপুরের মধ্যাহ্নভোজের ব্যবস্থা করেছেন। দুপুরে সেখানে মধ্যাহ্নভোজ সেড়ে তিনি সরাসরি চলে যাবেন বোলপুরের ডাকবাংলো ময়দানে । সেখান থেকে বোলপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত তাঁর পদযাত্রা করার কথা রয়েছে। বোলপুর চৌরাস্তায় পদযাত্রা শেষ হওয়ার পর, সেখানে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেবেন অমিত শাহ, পরে তিনি চলে যাবেন বোলপুরের একটি বেসরকারী রিসোর্টে সেখানে সাংবাদিক সম্মেলন শেষ করে অন্ডাল এয়ারপোর্ট থেকে আবারও দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন।

এই সফর সূচি রয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। তার জন্য রাজ্য সরকার ও কেন্দ্র সরকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করতে সাদা পোশাকে প্রচুর পুলিশ নামানো হয়েছে বোলপুরে । এ দিন বোলপুরের ডাকবাংলো ময়দান ও বিশ্বভারতীর যে সমস্ত জায়গা দিয়ে শাহ’র যাওয়ার কথা, এমনকি বাউল শিল্পীর বাড়িও ঘুরে দেখেছেন কেন্দ্রীয় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিআরপিএফ জাওয়ানরা। পাশাপাশি বোলপুর শহরে তিনি কিভাবে পদযাত্রা করবেন, তারও ডেমো দেখানো হয়েছে। অমিত শাহের জন্য দুপুরে খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে বাসুদেব দাস বাউলের বাড়িতেই ।

সেখানে তার জন্য দুপুরের মধ্যাহ্নভোজের থাকছে ভাত, ডাল, পালং শাকের তরকারি, বেগুন ভাজা, পটল ভাজা, আলু পোস্ত, চাটনি, পাঁপড়, নলেন গুড়ের রসগোল্লা । তাঁকে খাবার দেওয়া হবে মাটির থালা ও কলাপাতায়, এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাউল শিল্পীর পরিবার। পাশাপাশি জানানো হয়েছে তাঁদের ক্ষুদ্র রোজকার থেকে বাঁচিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে উপহার স্বরূপ তুলে দেওয়া হবে বাউলদের বাদ্যযন্ত্র একতারা । তারও ব্যবস্থা করছেন বাসুদেব দাস বাউল।

বিজেপির পক্ষ থেকেও আজ বোলপুর ডাকবাংলা ময়দান, বিশ্বভারতী এলাকা ও বাউলের বাড়ি ঘুরে রাখা হয় । ঘুরে দেখেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা অনুপম হাজরা ও রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় । মূলত বাসুদেব দাস বাউলের বাড়িতে কাঠের আগুনে রান্না হবে বলে জানানো হয়েছে । সেই মতো কাঠের উনুন তৈরি করা হয়েছে। পাশাপাশি থাকছে গ্যাস পরিষেবাও। প্রস্তুতি প্রায় চূড়ান্ত । শুধু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আসার অপেক্ষা করছে শান্তিনিকেতন। এই শীতেও রাজনীতির আগুনে ফুটছে লাল মাটি ।

Published by: Simli Raha
First published: December 19, 2020, 7:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर