Home /News /south-bengal /
Bangla News: থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত একমাত্র ছেলে, সমবায় সমিতিতে টাকা রেখে বড়সড় বিপদে বাবা-মা

Bangla News: থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত একমাত্র ছেলে, সমবায় সমিতিতে টাকা রেখে বড়সড় বিপদে বাবা-মা

Chandrakona News: থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত একমাত্র ছেলে। চিকিৎসার জন্য বাবা-মা জমি বেচে টাকা জমা রেখে ছিলেন সমবায় সমিতিতে।

  • Share this:

#সুকান্ত চক্রবর্তী, চন্দ্রকোনা: থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত একমাত্র ছেলে। তার চিকিৎসার জন্য জমি বেচে লক্ষ লক্ষ টাকা জমা রেখে ছিলেন সমবায় সমিতিতে। সেই সমবায় সমিতির গাফিলতির ফলে টাকা না পেয়ে চরম বিপাকে চন্দ্রকোনার মিনা পাল।

নিজের গচ্ছিত টাকা ফিরে পাওয়ার জন্য থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত ছেলেকে নিয়ে প্রশাসনের দরজায় ঘুরেও মেলেনি সুরাহা। টাকা না পেয়ে চরম হতাশায় মিনার পরিবারের সদস্যরা ।

আরও পড়ুন- পূর্ব মেদিনীপুরে নিত্য বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা! কারণ শুনলে আঁতকে উঠবেন...

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা ১ নম্বর ধুলিয়াডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা মিনা পালের এখন অসহায় অবস্থা। গ্রামের  শ্রীনগর ঠাকুরহাটি সমবায় সমিতিতে এক মাত্র ছলে তুহিন পালের চিকিৎসার জন্য নিজেদের চাষের জমি বেচে ৮ লক্ষ টাকা জমা রেখেছিলেন। সমবায় সমিতিতে কয়েক বছর আগে সেই টাকা রেখেছিলেন তিনি।

ছেলের চিকিৎসার জন্য সমবায় সমিতি থেকে সময় মতো টাকা তুলতে পারবেন, এমনটাই আশা করেছিলেন তাঁরা। তবে  বর্তমানে সমবায় সমিতি থেকে ২ বছর ধরে কোনও টাকা তুলতে না পারায় থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত ছেলের চিকিৎসা করাতে হিমশিম খাচ্ছেন পরিবারের সদস্যরা।

পরিবারের দাবি, দ্রুত সমবায় কর্তৃপক্ষ তাদের টাকা ফেরত দিক। জেলা প্রশাসন ও ব্লক প্রশাসনের আধিকারিকদের দ্বারস্থ হয়েও মেলেনি সুরাহা। কিন্তু কেন এই সমস্যা? জানা যায়, কয়েক বছর আগে সমবায় সমিতির তৎকালীন বোর্ড মেম্বাররা সমবায় দপ্তরের টাকা ঋণ দিয়েছিল বেশ কিছু ব্যবসায়ী ও কোল্ডস্টোরেজে মালিকদের। প্রায় কয়েক কোটি টাকা কোটিপতি ব্যবসায়ীরা পরিশোধ না করার জন্য সমিতির লাটে ওঠার উপক্রম।

আরও পড়ুন- ৭০ বছর বয়সে বিয়ের পিড়িতে সুব্রত, স্বামীকে নিয়ে বেজায় খুশি ৬৫-এর অপর্ণা

মীনা দেবীর মতো একাধিক মানুষ পড়েছেন সমস্যায়। গচ্ছিত টাকা না পেয়ে অনেকেই হতাশ। এই নিয়ে বেশ কয়েক বার সমাবায় সমিতি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান প্রতারিত গ্রাহকরা। যদিও এই বিষয়ে ব্লক সমবায় কৃষি আধিকারিক অর্পিতা চক্রবর্তী বলেন, জেলাশাসক থেকে শুরু করে সকলকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। আমরা দেখছি দ্রুত টাকা কীভাবে ফেরত দেয়া যায়! এদিকে, শাসক দলের নেতাদের মদতেই এই দূর্নিতী বলে দাবী বিজেপির।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Chandrakona, Paschim Medinipore

পরবর্তী খবর