দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফাল্গুনেই শুরু সেল! মাইকে জোরদার প্রচার, জলের দরে চলছে বিকিকিনি 

ফাল্গুনেই শুরু সেল! মাইকে জোরদার প্রচার, জলের দরে চলছে বিকিকিনি 
সংগৃহীত ছবি

চৈত্র মাসের এখনও কিছুটা দেরি রয়েছে। তার আগেই সেল শুরু হয়ে গিয়েছে পূর্ব বর্ধমানে।

  • Share this:

#বর্ধমান: চৈত্র মাসের এখনও কিছুটা দেরি রয়েছে। তার আগেই সেল শুরু হয়ে গিয়েছে পূর্ব বর্ধমানে। তবে এ সেল পোশাকের নয়, এই সেল মুরগির।

রীতিমতো মাইকে হেঁকে মুরগির মাংসের ক্রেতাদের আকর্ষণীয় অফার দেওয়া হচ্ছে। জলের দরে বিক্রি হচ্ছে গোটা মুরগি এবং মুরগির মাংস। কিন্তু তাতেও সেভাবে ক্রেতার দেখা নেই। সৌজন্য করোনা ভাইরাসের গুজব।

পূর্ব বর্ধমানের ভাতার বাজারে কামারপাড়া রোডের গায়ে পশু হাসপাতালের সামনে সুকান্ত দাসের মুরগির মাংসের দোকান। আজ সকাল থেকে সেই দোকানে সেল শুরু হয়েছে। দোকানের বাইরে লাগানো হয়েছে পোস্টার। গোটা মুরগি ৫৫ টাকা কেজি। কাটা মুরগির কেজি প্রতি ১০০ টাকা। মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে রীতিমতো পেশাদারি কায়দায় ঘোষণা  চলছে- 'সেল সেল সেল। গুজবে কান দেবেন না। আসুন, আসুন, তাজা মুরগি নিয়ে যান।" সে ডাকে আসছেন অনেকেই। রগড় দেখে ফিরে যাচ্ছেন। কিন্তু মুরগি কিনছেন না।

ব্যবসায়ী সুকান্ত দাস জানিয়েছেন, গত বেশ কয়েক বছর ধরে ব্যবসা করছেন তিনি। এভাবে মুরগির দাম কমে যেতে দেখিনি। এলাকায় গুজব ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাসের। কিন্তু আমাদের কাছে যে মুরগি আসছে একদম সতেজ মুরগি। তবুও কেউ মুরগি কিনছে না। মুরগি বিক্রি কমে যাওয়ায় কোম্পানি কম দামে বিক্রি করার অনুমতি দিয়েছে আমাদের। কারণ মুরগির উৎপন্ন বেশি হচ্ছে কিন্তু বিক্রি নেই। মুরগি রেখে দিলেও লোকসান। তার প্রতিদিনের খাবার খরচ অনেক। সেই জন্য মুরগির দাম কমিয়ে আজ থেকে সেল দেওয়া হচ্ছে।

মাইকিং ও পোস্টার লাগিয়ে মুরগির সেলের প্রচারে কোনও খামতি নেই।  জোর কদমে প্রচার চললেও খদ্দেরের দেখা নেই। চিকিৎসকরা অভয় দিচ্ছেন। মুরগির মাংস থেকে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর কোনও আশঙ্কা নেই বলছেন তাঁরা। কিন্তু বাসিন্দারা সে কথায় ভুলছেন না। কেনা তো দূরের কথা মুরগির দোকানের ধার দিয়েও যাচ্ছেন না অনেকেই।

SARADINDU GHOSH

Published by: Shubhagata Dey
First published: March 1, 2020, 4:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर