ATM কার্ড নেই, কিন্তু এটিএম থেকেই ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রের অ্যাকাউন্টে গায়েব ১৩ হাজার টাকা

ATM কার্ড নেই, কিন্তু এটিএম থেকেই ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রের অ্যাকাউন্টে গায়েব ১৩ হাজার টাকা
ছবিটি প্রতীকী

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র রাফেউল খানের স্টেট ব্যাঙ্কে একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে৷ সেই অ্যাকাউন্টে ১৩ হাজার টাকা ছিল৷ অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছিল সরকারি সংখ্যালঘুর বৃত্তির পাওয়ার জন্য৷

  • Share this:

দুবরাজপুর: দেদার ব্যাঙ্ক জালিয়াতি শুরু হয়েছে রাজ্যে৷ এ বার এক ছাত্রের এটিএম কার্ড না-থাকা সত্ত্বেও এটিএম দিয়েই অ্যাকাউন্ট থেকে গায়েব হয়ে গেল ১৩ হাজার টাকা৷ ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের দুবরাজপুরের ইসলামপুর এলাকায়৷

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র রাফেউল খানের স্টেট ব্যাঙ্কে একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে৷ সেই অ্যাকাউন্টে ১৩ হাজার টাকা ছিল৷ অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছিল সরকারি সংখ্যালঘুর বৃত্তির পাওয়ার জন্য৷ প্রতি মাসে রেফাউলের বাবা ১ হাজার টাকা করে ছেলের অ্যাকাউন্টে রেখে আসতেন৷ কোনও এটিএম ছিল না৷ ব্যাঙ্ক জানিয়েছিল, ১৮ বছর বয়স না-হলে এটিএম কার্ড দেওয়া যাবে না৷ আজ অর্থাত্‍ শনিবার সকালে পাসবই আপডেট করতে গিয়েই ঘটনাটি সামনে আসে৷

পাসবইয়ে দেখা যায়, দু দফায় সিউড়ি ও দুবরাজপুরের এটিএম থেকে ১৩ হাজার টাকা গায়েব করা হয়েছে৷ অথচ রেফাউলের কোনও এটিএম কার্ডই নেই৷ ওই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে একটি মোবাইল নম্বরও লিঙ্ক করা আছে, সেই নম্বরটি কার, জানে না রেফাউলের পরিবার৷ গোটা ঘটনায় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে রেফাউলের পরিবার৷

কয়েক দিন আগেই নদিয়ায় ভয়ে এটিএম কার্ডের নম্বর বলে দিতেই এক ব্যক্তির ৫০ হাজার টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নেয় প্রতারকরা৷ দিলীপ ঘোষের ফোনে একটি অচেনা নম্বর থেকে ফোন আসে৷ ফোনের ওপারের ব্যক্তি নিজেকে ব্যাঙ্ক কর্মী বলে পরিচয় দেয়৷ দিলীপ ঘোষকে সে ভয় দেখায়, এটিএম কার্ড ব্লক হয়ে গিয়েছে৷ কার্ডের নম্বর দিলেই খুলে দেওয়া হবে৷ কিছু না বুঝে ভয় পেয়ে কার্ডের নম্বর বলে দেন দিলীপ৷ ষোল সংখ্যার নম্বরটি বলে দেওয়ার পরেই ওই ব্যক্তি জানায়, খানিক ক্ষণের মধ্যেই খুলে দেওয়া হবে দিলীপ ঘোষের কার্ড৷

কয়েক মুহূর্তের মধ্যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে কয়েক দফায় ৪৯ হাজার ৯৯৯ টাকা তুলে নেয় প্রতারকরা৷ ব্যাঙ্কে গিয়ে দিলীপ গোটা বিষয়টি জানান৷ কার্ডটি ব্লক করা হয়৷ কল্যাণী থানায় অভিযোগও দায়ের করেন৷

Loading...

First published: 08:49:05 PM Nov 23, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर