corona virus btn
corona virus btn
Loading

ছোটবড় গর্ত দু নম্বর জাতীয় সড়কে! রয়েছে দুর্ঘটনার আশঙ্কা

ছোটবড় গর্ত দু নম্বর জাতীয় সড়কে! রয়েছে দুর্ঘটনার আশঙ্কা

যে কোনও সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। বর্ধমান থেকে বুদবুদ পর্যন্ত জাতীয় সড়কের অনেক জায়গাতেই এই ধরনের ছোটখাটো গর্ত থেকেই যাচ্ছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: জায়গায় জায়গায় গর্ত দু নম্বর জাতীয় সড়কে। সেই সব গর্তে পড়ে লাফিয়ে উঠছে দ্রুতগামী গাড়ি। যে কোনও সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। বর্ধমান থেকে বুদবুদ পর্যন্ত জাতীয় সড়কের অনেক জায়গাতেই এই ধরনের ছোটখাটো গর্ত থেকেই যাচ্ছে। অবিলম্বে সেসব গর্ত মেরামত করে জাতীয় সড়ক মসৃণ রাখা কাজ সম্পূর্ণ করা উচিত বলে জানিয়েছেন এই রাস্তা ব্যবহারকারী গাড়ি চালকরা। জাতীয় সড়কে ছোটবড় গর্ত থেকে যাওয়ার কথা দু নম্বর জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর মিলেছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার ওপর দিয়ে গিয়েছে দুই নম্বর জাতীয় সড়ক। হুগলির গুড়াপ পেরিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ঢুকেছে দুই নম্বর জাতীয় সড়ক। জামালপুর মেমারি শক্তিগড় বর্ধমান গলসি থানা এলাকা পাড় করে পানাগড়ের কাছে সেই জাতীয় সড়ক পশ্চিম বর্ধমান জেলায় প্রবেশ করেছে। পূর্ব বর্ধমান জেলার অংশে জাতীয় সড়কে মূলত বর্ধমান থেকে বুদবুদ পর্যন্ত এলাকায় বেশ কয়েকটি ছোটবড় গর্ত লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

গাড়ি চালকরা বলছেন,জাতীয় সড়কের রাস্তা মসৃণ থাকবে ধরে নিয়েই কমপক্ষে একশো কিলো মিটারের ওপর গতিতে এই রাস্তায় গাড়ি চলে। সেই রাস্তায় ছোটখাটো গর্ত থাকলেও  গতির কারণে তা বিপদজনক হয়ে দাঁড়ায়। চালক বুঝে ওঠার আগেই গর্তে চাকা পড়ে লাফিয়ে উঠছে গাড়ি। অনেক সময়  হঠাৎ করে সামনে গর্ত দেখে তা পাশ কাটাতে হচ্ছে চালকদের। এসবের কারণে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

এতদিন দেখা গেছে, জাতীয় সড়ক মসৃণ রাখার কাজে বেশিরভাগ সময়ই তৎপর থাকে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা। কোথাও রাস্তা খারাপ হলে তা সঙ্গে সঙ্গে সারাই করে ফেলা হয়।বর্ধমান থেকে বুদবুদ পর্যন্ত রাস্তায় সেই সংস্কারের কাজ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শুরু হওয়া উচিত বলে জানিয়েছেন জাতীয় সড়ক ব্যবহারকারীরা। এ ব্যাপারে পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, গলসি থেকে বর্ধমান পর্যন্ত দুই নম্বর জাতীয় সড়কে কিছু সমস্যা রয়েছে বলে খবর মিলেছে। বিষয়টি জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি সংস্কারের কাজ শুরু হয়ে যাবে।

Published by: Akash Misra
First published: June 11, 2020, 8:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर