৩১ বছর ধরে পরিকল্পনাই সার, সালকিয়ার ভোগান্তি কমাতে আজও অসমাপ্ত উড়ালপুলের কাজ

৩১ বছর ধরে পরিকল্পনাই সার, সালকিয়ার ভোগান্তি কমাতে আজও অসমাপ্ত উড়ালপুলের কাজ
অসম্পূর্ণ উড়ালপুলের কাজ, নিত্য যানজট সালকিয়ায়৷

যানজট রুখতে ১৯৮৯ সালে বাম আমলে সালকিয়ায় একটি ফ্লাইওভার তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷

  • Share this:

#সালকিয়া: হাওড়ার "সালকিয়া" নাম শুনলেই এখন বাইক আরোহী থেকে ট্যাক্সি চালক সবাই যেন আটকে ওঠেন৷ কলকাতা ও হাওড়া থেকে উত্তর হাওড়া, বালি, বেলুড় এমন কি হুগলি যাওয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ  রাস্তা জি টি রোড ৷ আর উত্তর হাওড়ার সালকিয়া চৌরাস্তা এই জি টি রোডে সমস্যার অন্যতম মূল কারণ৷ এই এলাকার মূল সমস্যা হল তীব্র যানজট৷ সালকিয়া চৈরাস্তা অতিক্রম করতে রীতিমতো ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হচ্ছে গাড়ি চালকদের৷

সালকিয়া সম্মেলনি পার্ক এলাকা থেকে সালকিয়া বাবুর ডাঙ্গা  মোড় পর্যন্ত মাত্র ৫০০ থেকে ৭০০ মিটার রাস্তা অতিক্রম করতে সময় লাগে কম করে কুড়ি থেকে তিরিশ  মিনিট৷ কখনও কখনও চল্লিশ থেকে পয়তাল্লিশ  মিনিটও লেগে যায়৷ সালকিয়া চৌরাস্তাকে ঘিরে রয়েছে গুরুত্তপূর্ণ কিছু এলাকা, সালকিয়া বাঁধাঘাট লঞ্চ ঘাট যা কি না উত্তর হাওড়া থেকে উত্তর কলকাতা যোগাযোগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ফেরি সার্ভিস৷ অন্যদিকে রয়েছে বেনারস রোডের সংযোগস্থল, গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তায় প্রতি ঘণ্টায় প্রায় পাঁচ হাজার  গাড়ি চলাচল করে৷ এই রাস্তা দিয়ে বেশ কয়েকটি রুটের বাসও চলাচল করে৷

যানজট রুখতে ১৯৮৯ সালে বাম আমলে সালকিয়ায় একটি ফ্লাইওভার তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ সেই সময় পুনর্বাসনের দাবিতে শুরু হয় আন্দোলন৷ ফ্লাইওভার তৈরির বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন সেখানকার ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দারা৷ পরবর্তীকালে সেই মামলা যায় সুপ্রিম কোর্টে৷ সেখানে ব্যবসায়ীদের সমর্থনে রায় দেয় দেশের উচ্চ আদালত৷ এরপর ২০১১ সালে রাজ্যে রাজনৈতিক পরিবর্তনের পর ফের শুরু হয় ফ্লাইওভার তৈরির তোড়জোড়৷ তৎকালীন উত্তর হাওড়ার বিধায়ক অশোক ঘোষের সহযোগিতায় রাজ্য পুর ও নগরোন্নয় দফতর ছাড়পত্র দেওয়ায়  হাওড়া উন্নয়ন সংস্থা (H I T )  উড়ালপুল তৈরির কাজ শুরু করে ৷ ঠিক হয় এলাকার ২২৪ জন ব্যবসায়ী ও ১২৫টি পরিবারকে পুনর্বাসন দেওয়ায় হবে৷সেই মতো শুরু হয় কাজকর্ম৷


ইতিমধ্যেই বেশকিছু মানুষকে পুনর্বাসন দেওয়া হয়েছে৷ ২০১৭ সালে প্রায় এক কিলোমিটার লম্বা ও ৬০ ফুট চওড়া সালকিয়া ফ্লাইওভারের শিলন্যাস করেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ  হাকিম ৷এত কিছুর পরও কোন অদৃশ্য কারণে থমকে আছে ফ্লাইওভারের কাজ ?  সালকিয়া ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য অসীম কুমার দাসের দাবি, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও বাসিন্দারা সব রকম সাহায্য করলেও  কাজের গতি অত্যন্ত শ্লথ| অন্নদিকে স্থানীয় পথচলতি মানুষজনের অভিযোগ, যানজটের কারণে তাঁরা নাজেহাল, ফলে দ্রুত সেতুর কাজ শেষ হওয়া প্রয়োজন৷

হাওড়া উন্নয়ন সংস্থার দাবি, বিভিন্ন কোর্ট মামলার কারণেই মাঝে মাঝে কাজ থমকে যাচ্ছে৷ ৩১ বছরের পুরোন পরিকল্পনা কবে বাস্তবায়িত হয়, তারই অপেক্ষায় সালকিয়াবাসী৷

Debashish Chakraborty

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

লেটেস্ট খবর