দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

৩১ বছর ধরে পরিকল্পনাই সার, সালকিয়ার ভোগান্তি কমাতে আজও অসমাপ্ত উড়ালপুলের কাজ

৩১ বছর ধরে পরিকল্পনাই সার, সালকিয়ার ভোগান্তি কমাতে আজও অসমাপ্ত উড়ালপুলের কাজ
অসম্পূর্ণ উড়ালপুলের কাজ, নিত্য যানজট সালকিয়ায়৷

যানজট রুখতে ১৯৮৯ সালে বাম আমলে সালকিয়ায় একটি ফ্লাইওভার তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷

  • Share this:

#সালকিয়া: হাওড়ার "সালকিয়া" নাম শুনলেই এখন বাইক আরোহী থেকে ট্যাক্সি চালক সবাই যেন আটকে ওঠেন৷ কলকাতা ও হাওড়া থেকে উত্তর হাওড়া, বালি, বেলুড় এমন কি হুগলি যাওয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ  রাস্তা জি টি রোড ৷ আর উত্তর হাওড়ার সালকিয়া চৌরাস্তা এই জি টি রোডে সমস্যার অন্যতম মূল কারণ৷ এই এলাকার মূল সমস্যা হল তীব্র যানজট৷ সালকিয়া চৈরাস্তা অতিক্রম করতে রীতিমতো ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হচ্ছে গাড়ি চালকদের৷

সালকিয়া সম্মেলনি পার্ক এলাকা থেকে সালকিয়া বাবুর ডাঙ্গা  মোড় পর্যন্ত মাত্র ৫০০ থেকে ৭০০ মিটার রাস্তা অতিক্রম করতে সময় লাগে কম করে কুড়ি থেকে তিরিশ  মিনিট৷ কখনও কখনও চল্লিশ থেকে পয়তাল্লিশ  মিনিটও লেগে যায়৷ সালকিয়া চৌরাস্তাকে ঘিরে রয়েছে গুরুত্তপূর্ণ কিছু এলাকা, সালকিয়া বাঁধাঘাট লঞ্চ ঘাট যা কি না উত্তর হাওড়া থেকে উত্তর কলকাতা যোগাযোগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ফেরি সার্ভিস৷ অন্যদিকে রয়েছে বেনারস রোডের সংযোগস্থল, গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তায় প্রতি ঘণ্টায় প্রায় পাঁচ হাজার  গাড়ি চলাচল করে৷ এই রাস্তা দিয়ে বেশ কয়েকটি রুটের বাসও চলাচল করে৷

যানজট রুখতে ১৯৮৯ সালে বাম আমলে সালকিয়ায় একটি ফ্লাইওভার তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ সেই সময় পুনর্বাসনের দাবিতে শুরু হয় আন্দোলন৷ ফ্লাইওভার তৈরির বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন সেখানকার ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দারা৷ পরবর্তীকালে সেই মামলা যায় সুপ্রিম কোর্টে৷ সেখানে ব্যবসায়ীদের সমর্থনে রায় দেয় দেশের উচ্চ আদালত৷ এরপর ২০১১ সালে রাজ্যে রাজনৈতিক পরিবর্তনের পর ফের শুরু হয় ফ্লাইওভার তৈরির তোড়জোড়৷ তৎকালীন উত্তর হাওড়ার বিধায়ক অশোক ঘোষের সহযোগিতায় রাজ্য পুর ও নগরোন্নয় দফতর ছাড়পত্র দেওয়ায়  হাওড়া উন্নয়ন সংস্থা (H I T )  উড়ালপুল তৈরির কাজ শুরু করে ৷ ঠিক হয় এলাকার ২২৪ জন ব্যবসায়ী ও ১২৫টি পরিবারকে পুনর্বাসন দেওয়ায় হবে৷সেই মতো শুরু হয় কাজকর্ম৷

ইতিমধ্যেই বেশকিছু মানুষকে পুনর্বাসন দেওয়া হয়েছে৷ ২০১৭ সালে প্রায় এক কিলোমিটার লম্বা ও ৬০ ফুট চওড়া সালকিয়া ফ্লাইওভারের শিলন্যাস করেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ  হাকিম ৷এত কিছুর পরও কোন অদৃশ্য কারণে থমকে আছে ফ্লাইওভারের কাজ ?  সালকিয়া ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য অসীম কুমার দাসের দাবি, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও বাসিন্দারা সব রকম সাহায্য করলেও  কাজের গতি অত্যন্ত শ্লথ| অন্নদিকে স্থানীয় পথচলতি মানুষজনের অভিযোগ, যানজটের কারণে তাঁরা নাজেহাল, ফলে দ্রুত সেতুর কাজ শেষ হওয়া প্রয়োজন৷

হাওড়া উন্নয়ন সংস্থার দাবি, বিভিন্ন কোর্ট মামলার কারণেই মাঝে মাঝে কাজ থমকে যাচ্ছে৷ ৩১ বছরের পুরোন পরিকল্পনা কবে বাস্তবায়িত হয়, তারই অপেক্ষায় সালকিয়াবাসী৷

Debashish Chakraborty

Published by: Debamoy Ghosh
First published: September 18, 2020, 12:11 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर